Home » Archives by category » এলোমেলো (Page 15)

একদা কাঠে জ্বলতাম, এখন তড়িৎ ব্যবস্হা একটু বেশী একাকীত্বতা, ডোমেদের বাশের নেই সেই পরিচরয্যা , নেই সেই চিতার সুখশয্যা , নেই ফিরে দেখা কত ফোটা আঁখি জল , শীতল করবে পরকাল। মনের জ্বলনের বৈদ্যুতীকরণ? জ্বলনের আধুনিকতা ? এসেমেস আর এমেমেস এর সৃজনশীলতা ? কিছু ভগ্নতা আর নগ্নতা, পরিশেষে আবদ্ধতা। বলোহরি হরিবোলের কিছু ডিজিটাল ব্যবস্হা। আমার […]

Continue reading …
অনিমেষ এর চিঠি (সর্বশেষ খন্ড)

দেবী, তোর চিঠি পেলাম-দূর থেকে দেখলামও আজ। মনকে অনেক সান্তনা দেবার ইচ্ছা করছিলো-সম্ভব হলো না। তুইতো আর সামনে এলি না-সম্ভবত আমিও এড়িয়ে গেলাম। পরাজয়ের পর কে চায় সামনে এসে হাত মেলাতে? আমি অবশ্য তোকে দেখছিলাম- ক্যাম্পাসের A বিল্ডিংটার পাশে চায়ের দোকানে বসে। লাইব্রেরীর সামনে দিয়ে সোজা হেটে যাচ্ছিলি-তোর প্রিয় বেগুনী রঙ এর কামিজ আর এককালে […]

Continue reading …

সময়কালঃ২০০৬ আনিমেশ, তোমার মতন সাহিত্যে পারদর্শি আমি নই। তোমাকে কতবার বলেছি,একটু বুঝার চেষ্টা করো। পাছে,যখন চলে যাবো- নিজেকে সান্তনা দেবার ভাষাটাও খুজে পাবে না তুমি। তবে হ্যা, একটা কথা না বলে পারছিনে। তোমার শাওন বান্ধবী আসলে কি মতলবে আমার মোবাইল থেকে তোমাকে মিসকল দিয়েছিলো-তা অজানা। তবু,জানা অংশ থেকে লিখছি, ওই দিন যদি তুমি মিসকল ব্যাক […]

Continue reading …

গৈয়া গাছ নিয়া বড়ো বালা-মুছিবত। একবার বাজান বোলায় কৈলো- বাগানে যাইয়া পায়রা দ্যাও। বাগানে গৈয়া দরতে শুরু হরছে। রঙ ঢং আইতাছে। এই সুমায় কাউয়ায় গৈয়া টুকরায়। মহা জামেলা। গেইসি বাগানে একদিন। একখান বারমাস্যা চটি মাতায় দিয়া গুমায় পড়সি। ও খোদা, কোত্থিকা য্যান জটপট শব্দ। কু কু করে রে। দেহি কাউয়া উইড়্যা যায়। বোজেন ব্যপারডা। মুনে […]

Continue reading …

চেনা এই শহরে রাতজাগা অনেক পাখি উড়ে ডানা ঝাপ্টে তারা আমাকে জানিয়ে যায় আমি এখনো জেগে আছি, জেগে জেগে স্বপ্নের জাল বুনে চলেছি। দুরন্ত স্বপ্ন গুলো ছুটছে ঝড়ের বেগে কেমন জানি দিশেহারা, বাইরে নিস্তব্ধ আকাশ জ্বলছে কিছু তারা, নির্ঘুম রাতে একটানা ডেকে চলে ঝিঝিপোকারা।

Continue reading …

অমি বাইরে ভীষন ঝড় হচ্ছেরে । শ্রাবনে এমন ঝড় তো হবার কথা না ! এমন ঝড় শুধু বৈশাখে হয় । কে জানে , প্রকৃতির মাথাও বুঝি খানিকটা আমার মতই গুলোতে শুরু করেছে । প্রকৃতির ঝড় মানব মনেও বেশ প্রভাব ফেলে , তা তোর চে’ ভালো আর কে জানে ? তখন তুই-আমি দু’জনে , আমাদের বাড়ির […]

Continue reading …

অমি , কতদিন তোর সাথে দেখা হয় না । খুব দেখতে ইচ্ছে করছে তোকে । মাঝে মাঝেই আমার এমন হয় । পরিচিত মুখগুলো দেখতে ইচ্ছে করে খুব করে। বাইরে বৃষ্টি নেই ; বৃষ্টির ঘ্রান পাচ্ছি । মন বলছে , তোকে লেখা শেষ করতেই বৃষ্টি নামবে । তখন তোকে দিব্যি ভুলে গিয়ে ভিজতে ছুটে যাব । […]

Continue reading …

ক্ষুধা

4 Comments

জনম থেকে স্তন খুঁজে আমি তন খুঁজি যৌবনে, ধন খুঁজি মনে, লোলুপতা সনে মরে যাই সদা মনে। মন অরণ্যে সদা স্মরণ্যে, শুধু ঐ একই সুধা… ক্ষুধা। ক্ষুধা তো আজকের নয়, ক্ষুধা তো জনমের, আর কত সয়? পেটে, নজরে, মনে, শরীরে ক্ষুধাই ক্ষুধাময়। জানো, এর পিছনেই জীবন পণ করে আসরে আসরে ছোটা প্রান্ত থেকে প্রান্তরে জন্ম […]

Continue reading …

শুভাশিষ

10 Comments

খুব আনন্দঘন মূহুতে’ মানুষের অনেক কিছুই করতে ইচ্ছে করে। আমি সাইন্টিস্ট মানুষ। অন্তত বিজ্ঞান বুঝবার অভিপ্রাস জ্ঞাপন করি। ইদানিং কবিতা ও ছোট গল্পে ছেদ পড়েছে। নিজের  লিখা সাহিত্যকম’ পড়ে হাতড়াচ্ছিলাম কিভাবে আবারো নব নবরুপে লিখা যায়। আশরাফুল প্রতি বলে একই ভাবে ছক্কা পিটালে বাহবা পড়েবে সত্য কিন্তু আজিজূল একই রকমের, একই স্বাদের কবিতা লিখলে মানুষ […]

Continue reading …

সবারই নানারকম শখ থাকে। আমারও আছে। তার মধ্যে একটা হল মরনকালীন শখ। আয়োজন করে মৃত্যকে উপভোগ করার শখ। আমি যখন মারা যাব, ঠিক তখন আমি চাই আবহ সঙ্গিত হিসেবে নিচের গানটা বাজুক। তখন থাকবে গভীর রাত। ঘরের সকল দরজা-জানালা খোলা থাকবে। বাতাসে পর্দা উড়তে থাকবে। ঘরে থাকবে শুধু একটি আধো-জ্বলা মোমবাতি। সেই মোমবাতির ম্লান আলোয় […]

Continue reading …