Home » Archives by category » সাহিত্য » ভালবাসার গল্প (Page 3)

এক গত দু’বছর লোকটা এই বিশেষ দিনটি অন্তত ভোলেনি । কথাটা ভেবে মনে শান্তির এক বিশুদ্ধ ঝর্ণার ধারা বয়ে গেলো সতপার মনে। আজ তার বিয়ের তৃতীয় বার্ষিকী। তার স্বামী চৌধুরী আরমান ইন্তেখাব সকালে আজও যন্ত্রের মত নিত্যদিনের প্রতিটি কাজ করেছে। দিনটি মনে আছে কিনা তা একবার ও তার আচরণে বোঝা যায়নি। এ নতুন নয়। প্রথম […]

Continue reading …

মেঘ রঙ্গা দিন তুহিনের হাতে একটি পাঁচশ টাকার নোট। হঠাৎ মিষ্টি সুরে সেল্ ফোনটা বেজে উঠল আর তাতে ভেসে উঠা নামটা তার কাছে আরো মিষ্টি লাগল। সে টাকাটা যেখান থেকে নিয়েছিল ঠিক সেখানেই আবার রেখে দিল। -শুভ সকাল। -শুভ সকাল পিউ। আকাশ দেখেছ? আজ মনে হয় একটা মেঘ রঙা দিন।বৃষ্টি নাও হতে পারে তবে দিনটা […]

Continue reading …

এক. -তোমার তো যোগ্যতা, মেধা আছে এ অজপাড়া গাঁয়ে পড়ে থেকো না, শহরে কোথাও গিয়ে হাইস্কুলে গিয়ে চাকুরী-বাকুরী কর? হেড স্যার রজতবাবু অরুপের হাত ধরে বললেন দেখ, অরুপ গ্রামের এ ছোট্ট প্রাইমারী স্কুল যে কোনদিন বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এতদিন বড়কর্তারা সাহায্য করেছিলো চলেছে, মুখ গুটিয়ে নিয়েছেন তারা। -হয়তো স্কুল আর চলবে না। আমাদের না […]

Continue reading …

১ চোখে বেশ যন্ত্রণা নিয়ে আছে কিছুদিন সবুজ। এই যন্ত্রণার উৎস তার জানা নেই। ডাক্তারের কাছে যাবো যাবো বলে যাওয়া হচ্ছে না। এই ছোট শহরে, ডাক্তারের কাছে যাওয়া মানে তার ভেতরের অপরাধবোধকে ডাক্তারের কাছে জানিয়ে দেয়া। যেমন গীর্জার ফাদারের কাছে পাপীর কনফেস করা। এটা খুবই একান্ত বোধ সবুজের। ডাক্তারের কাছে এলে মনে হয়, সে যেন […]

Continue reading …

হালকা আলো জ্বলছে। ২ টা লাইট। একটা নিভানো। ফ্যান ঘুরছে। শো শো শব্দ করে। ফ্যানের ছায়া পড়ছে দেয়ালে। দুটো বেড আর দুটো সোফা। এই হলো বর্নিত স্থান। রাত প্রায় ২ টা… পি জি হসপিটাল ঢাকা। ২০৯ নম্বর রুমে আমি। চোখ সামনে। রোগির বেডে। শুয়ে আছে। পরিবর্তিত।অচেনা মানুষ। সারা শরির হলুদ হয়ে রয়েছে। পেট ফুলে গেছে। […]

Continue reading …

০১. প্লাটফর্ম থেকে চোখ ঘুড়িয়ে এনে সামনে তাকাতেই দেখি একটা তরুনী মেয়ে সিটে ব্যাগ রেখে সবে দাড়িয়েছে। হাত পাখা ও একটা মিনারেল ওয়াটারের বোতল সহ। ট্রেন কামরার ফ্যান গুলো ঘুড়ছে না। জানিনা কেন বন্ধ হয়ে আছে। নোনা ঘাম গুলো গড়িয়ে পড়ে ঘাড়ের পাশটা হয়ে শার্ট ভিজছে আমার। কিচ্ছু করার নেই। হাত পাখাটা আনতে ভূলে গেছি […]

Continue reading …

০১. বাইরে ঝুপঝাপ বৃষ্টি হচ্ছে। বজ্রপাতের কমতি নেই। গগনবাসীরা কামার দাগাতে ভালোই জানে। হাতের নিশানা উলট্ পালট্ হলেও মাঝে সাঝে কুঁড়ে ঘর ফোঁড়তেও দ্বিধাবোধ করে না। আমি বৃষ্টিতে পা রাখলাম। অমনি অভ্যর্থনা জানাতে সাদা বরফ ছুড়তে লাগলো গগনবাসীরা। কাদামাখা ঘাস, সবুজ আঙ্গিনা, সাদা তুলোর মতো হয়ে গেছে। ভেতরে এলাম চলে। বৃষ্টির ছাট তাড়িয়ে নিয়ে এলো। […]

Continue reading …

একজন খুনী যদি সৃষ্টি করতে পারত তাহলে সে কখনই খুন করতে পারতনা। তাই নাকি? বলতো পারুল , তোকে কে সৃষ্টি করেছে? আল্লাহতায়ালা। আবার তোকে মারবে কে? সেই একই আল্লাহতায়ালা, নাকি? হুম । তাইলে বোঝ , সৃষ্টি করতে পারলেই মারা যাবেনা সে কথা মহাশক্তির জন্য সত্য নয় আর সামান্য একজন খুনী মানুষের ক্ষেত্রে কেমন করে সত্যি […]

Continue reading …

-এক- রিনি আর আমি – আচ্ছা তোমরা বাক্সের ভেতর মানুষ ভরে ফেলো কি করে ? দম আটকায় না। ইশ্পিশ করে না। – নাহ্ তো ! – আচ্ছা অন্ধকার ওই রুমটা ওই যে, যেখানে তোমরা মানুষের-মানুষমার্কা একটা আদল গড় কতোক্ষণ ধরে; তোমাদের দম বন্ধ হয়ে যায় না। – নাহ্ – আচ্ছা তোমাদের ফটোরা কথা বলেনা কেন […]

Continue reading …

বিনা মেঘের বৃষ্টি চাতক পাখির নাম শুনেছ? আমি যখন শুনেছি তখন শুনেছে অবশ্যই সকলে। হয়তো দেখেনি তার ত্রিমাত্রিক অবয়বখানা অনেকেই। সেটা মানা যায়। তারপরও আমরা চাতক পাখির মত হয়ে যাই। কারন ঘন্টা ধরে ধরে আকাশে মেঘ ঘন হয় এবং উড়ে যায় এপাশ থেকে ওপাশে। ধূসর একটা ঘনঘটা ছায়ায় ছেয়ে যায় ধরনীতল। হিমেল বাতাস সুরসুরি ধরনের […]

Continue reading …

( ভুমিকায় বলে নেই, গল্পের বক্তা চরিত্রটির মত আমিও নারীবাদি নই।আমি মানি নিয়তি নারী পুরুষ সবাইকে নিয়ে খেলে।তবে সবল দূর্বলকে কিছু কিছু ক্ষেত্রে পদদলিত করছে এবং করে এটা কিন্তু সত্য।এখানে গল্পের এবং চরিত্রের প্রয়োজনে কিছু কথা হয়ত এসে থাকবে তা  পুরুষ জাতিকে হাইলাইট করতে নয়। :D ।আর বানানের জন্য আগেই মাফ চাই।সময় খুব কম ছিল […]

Continue reading …

০১. সে আমায় বলতো আমি নাকি ভালোবাসতেই জানিনা। কিন্তু আমার মনের মধ্যে চিন্তার মহা জালটা বলে এর চেয়েও কি আরও বেশি ভালোবাসা যায়। আবার কখনও কখনও নিজের মনের শ্লেটে নিজেই লিখে চলি; হয়তো আরো বেশি ভালোবাসা যায় !! যে টুকু আমি জানিনা। আমার না; জানা ভালোবাসাটা জানা থাকলে ভালো হতো; তাহলে হয়তো তাকে আর; নোনা […]

Continue reading …
Page 3 of 512345