Home » Archives by category » নির্বাচিত শৈলী

দস্যু । মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম

এক. পশ্চিমের আকাশটা খানিক মেঘাচ্ছন্ন হয়ে আছে। শীতকাল কিনা তাই সূর্যের ম্রিয়মাণ আলোয় মনে হচ্ছে, বেলা পড়ে এল। কিন্তু, বাস্তবিক অর্থে তা নয়, তখনও দুপুর দেড়টার ন্যায় আন্দাজ করা যায়। বেলা ঠিকই আছে। জায়গামতন নেই শুধু আমার অবাধ্য মনটা। আমার সম্মুখে একটা খামবিহীন নগ্ন চিঠি পড়ে আছে। একদৃষ্টে সে দিকেই তাকিয়ে আছি। মনে আকাশ পাতাল […]

আমি ইচ্ছা করেই সুস্বাদু কথাটি ব্যবহার করেছি যদিও এটি অনুভবের স্বাদ। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ঝামেলা, স্ট্রেস, দুঃচিন্তা বা অনেক সমস্যা থাকে তাই মাঝে মাঝে একটু সময়ের জন্য হলেও সেগুলিকে এভোয়েড করতে পারলে আগত ঝামেলা বা সমস্যা মোকাবিলা করতে অনেক সুবিধা হয়। আর এ জন্য সব থেকে ভালো পদ্ধতি হলো কিছুটা সময় লাইক-মাইন্ডেড মানুষগুলিকে নিয়ে একটু […]

Continue reading …

…. “নওশীন! এই নওশীন!” বাথরুমের কলটা ছাড়া, হয়তো তাই ডাক শুনছে না। তূর্যের ফোনটা বাজছে, আনমনে থাকায় খেয়াল করা হয়নি। না, তূর্যের নয়। নওশীনের ফোন বাজছে। ড্রেসিং টেবিলের ওপর থেকে ফোনটা হাতে তুলে নিলো সে। থেমে থেমে বিপ বিপ আওয়াজ হচ্ছে। তূর্যের কুঞ্চিত ভ্রুর নিচে আলোকিত ফোনের স্ক্রিন। প্রতিদিন কে এত টেক্সট দেয় নওশীনকে? . […]

Continue reading …

আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় শ্রেণি বিভক্ত সমাজের প্রতিনিধিত্ব করে; সমাজের মধ্যে মানুষের যেরকম বিভিন্ন শ্রেণি রয়েছে, যেমন – ধনী, মধ্যবিত্ত, গরিব, ইত্যাদি, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝেও বিভিন্ন অলিখিত কিন্তু স্বপ্রকাশিত শ্রেণি বিদ্যমান, যেমন – পড়ুয়া, সাংস্কৃতিক-কর্মী, রাজনৈতিক-কর্মী, আড্ডাবাজ, ইত্যাদি। সমাজে বিদ্যমান শ্রেণিসমূহের মাঝে যেরকম দূরত্ব থাকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝেও সেরকম দূরত্ব প্রতিভাত হয়; শ্রেণি সম্পর্কের বৈরিতা ও মেরুকরণ […]

Continue reading …

হাজার বছর ধরে আমি পথ হাঁটিতেছি পৃথিবীর পথে, সিংহল-সমুদ্র থেকে নিশীথের অন্ধকারে মালয়-সাগরে অনেক ঘুরেছি আমি; বিম্বিসার-অশোকের ধূসর জগতে সেখানে ছিলাম আমি; আরও দূর অন্ধকারে বিদর্ভ নগরে; আমি ক্লান্ত প্রাণ এক, চারিদিকে জীবনের সমুদ্র সফেন, আমারে দু-দন্ড শান্তি দিয়েছিল নাটোরেরবনলতা সেন ।   চুল তার কবেকার অন্ধকার বিদিশার নিশা, মুখ তার শ্রাবস্তীর কারুকার্য; অতিদূর সমুদ্রের […]

Continue reading …

মাইক্রোসফটের চেয়ারম্যান বিল গেটস; তুরস্কের নতুন অফিসের জন্য একজন কাবিল এমপ্লয়ি খুঁজছেন। প্রায় ২০,০০০ আবেদনপত্র জমা পরল। এই ২০,০০০ জনের মধ্যে, ‘তরফদার’ নামের এক বাংলাদেশীও আছেন। বিল গেটস, ২০,০০০ আবেদনকারীকেই এক সাথে একটা বড় হল রুমে ডাকলেন। বিল গেটস বললেন, এখানে যারা ‘জাভা প্রোগ্রামিং’ পারেন, শুধু তারা থাকবেন। বাকিরা, দয়া করে আসতে পারেন। ২০,০০০ এর […]

Continue reading …

ভূ-অভ্যন্তরে শিলায় পীরনের জন্য যে শক্তির সঞ্চয় ঘটে, সেই শক্তির হটাৎ মুক্তি ঘটলে ভূ-পৃষ্ঠ ক্ষনিকের জন্য কেঁপে ওঠে এবং ভূ-ত্বকের কিছু অংশ আন্দোলিত হয়। এই রূপ আকস্মিক ও ক্ষনস্থায়ী কম্পনকে ভূমিকম্প (Earthquake) বলে। কম্পন-তরঙ্গ থেকে যে শক্তির সৃষ্টি হয়, তা ভূমিকম্পের মধ্যমে প্রকাশ পায়। এই তরঙ্গ ভূ-গর্ভের কোনো নির্দিষ্ট অঞ্চলে উৎপন্ন হয় এবং উৎসস্থল থেকে […]

Continue reading …

কাজ করতে অপারগ সালেহা আক্তারের বয়স আট বছর। তার মা ও বাবা ভিক্ষা করে সংসার চালায়। অনেক কিছুই তাদের ছেড়ে চলে যায়, শুধু অভাব যায় না। বরাবরের মত, এবারের শীতেও গায়ে দেওয়ার জন্য কোনো গরম কাপড় নেই। ভাতের অভাব যেমন সহ্য করা যায় না, তীব্র শীতের প্রকোপও সহ্য করা যায়না। কিন্তু উপায় কি? খালি পেটে […]

Continue reading …

আমি কোথায় পৌঁছেছি সেকথা কিছুক্ষণের জন্য ভুলে স্রষ্টা যদি আমাকে আরো কিছুটা জীবন দান করেন তবে আমি যথাসাধ্য তা ব্যবহার করার চেষ্টা করবো৷ সম্ভবত আমার মনে যা আছে তার সবটাই আমি বলবো না, কিন্তু যা বলতে চাই তার সবচেয়ে ভালোটাই আমি বলবো৷ কিছুর গুরুত্ব আমি দিবো তার মূল্যের জন্য নয়, বরং তার অর্থবহতার জন্য৷ আমি […]

Continue reading …

আমার বয়স তখন এগারো। একমাত্র চেনা পথটা ধরে সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছি। যাচ্ছি আমার মায়ের বাসা থেকে বাবার বাসায়। অনেকে জানতে চায়, বাবা-মা আলাদা হয়ে গেলে বাচ্চাদের কেমন লাগে। এ প্রশ্নের কোনো জবাব আমার জানা নেই। সত্যি বলতে কী, এটা আমার কাছে অবাক করা কোনো ব্যাপারও নয়। কারণ এই একটা মাত্র জীবনই আমার চেনা। পেছন দিকে […]

Continue reading …

বোধের কলঙ্কে আঁকা হত্যাযজ্ঞ , মানুষ হত্যায় কি সে মুক্তি? পৃথিবী জুড়ে প্রত্যহ মানুষ হত্যার খেলা অথচ এই পৃথিবী এই মানুষের জন্য,তাহলে কেন এই অনর্থক রক্ত বন্যা মানুষ মানুষের জন্য রক্তপাত কলঙ্ক। রক্ত নেশায় পশুরা হত্যাযজ্ঞে মাতে কারন তারা বোধ হীন প্রাণী,তাদের এ হত্যা সহসা ক্ষুধার জন্য কিন্তু আমরা মানুষ প্রাণীকূলের শ্রেষ্ঠ জীব,বার বার কেন […]

Continue reading …

২০০৯ সালের ২২ মে তাখিটা শাহ আবদুল করিমের জন্য অত্যন্ত আনন্দের দিন ছিলো। যদিও সেদিন তিনি স্বজ্ঞানে খুব স্বাভাবিক ছিলেন না, কিন্তু তাঁর চোখ মুখের অভিব্যক্তি বারবার বোঝাচ্ছিলো, তিনি অত্যন্ত আপ্লুত। সেদিন ছিলো ‘শাহ আবদুল করিম রচনাসমগ্র’ বইটির প্রকাশনা উৎসব, এবং সেটিই ছিলো কোনো অনুষ্ঠানে জীবিত অবস্থায় শাহ করিমের সর্বশেষ উপস্থিতি। শাহ আবদুল করিমের গ্রন্থপ্রীতি […]

Continue reading …
Page 1 of 212