ছোটগল্প

 মাহাবুবুল হাসান নীরু নীরু

মুক্তিযুদ্ধের গল্প: মুক্তির স্বাদ

মুক্তিযুদ্ধের গল্প: মুক্তির স্বাদ

বাবা মজিদ মাস্টারের কড়া নির্দেশ, কথা বলা যাবে না। হাসি-কান্না যা করবে সব নিঃশব্দে। টু-শব্দটিও নয়। গোলাঘরবন্দী জমিলা আর আয়েশা তাই মুখ খোলে না। বোবার মতো শুধু বসে থাকা। পরিস্থিতিটাকে ওরা দু’বোনই মেনে নিয়েছে, তবে মাঝে মাঝে বিদ্রোহী হয়ে উঠতে চায় আয়েশা। নাকের পাটা ফুলিয়ে ও ফিশফিশ করে প্রায়ই জমিলাকে বলে, বুবু, এভাবে ক’দিন আর […]

 নীল নক্ষত্র

আভিজাত্য

১। সোলায়মান হায়দর। বাড়ি আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে প্রায় ৪০ মাইল উত্তরে কালাকান নামের ছোট্ট শহর ছেড়ে আরও প্রায় ১৫ মাইল উত্তরে সাওয়ারখিল ছেড়ে এশিয়ান হাইওয়ে দিয়ে খানিকটা এগিয়ে কারাকান বাজারে ডান দিকে মোর নিয়ে যে ইসতালিফ সড়ক পূর্ব দিকে চলে গেছে তার বাম পাশে চৌরাস্তার ধারে। নিচে বিশাল মটর পার্টস এর দোকান আর দোতলায় […]

 ফাতেমা প্রমি

মেঘলা নীল অন্তর

“ওর নজর ভালো না, আমি আপা আগেই তোমারে কইছিলাম। তখন তো শুন নাই। এখন বুঝো। “ চেঁচাচ্ছিল সুফিয়া বেগম। পাশেই বসে আছে তার বোন মুনিয়া। কথা গুলো বোনের উদ্দেশ্যেই বলছিল সে। বেশী কথা বলা সুফিয়া বেগমের মুদ্রাদোষ; চেঁচানোটাও তাই। অন্য সময় হলে সুফিয়াকে থামিয়ে দিত মুনিয়া। কিন্তু আজকের ঘটনা অন্যরকম, তাই  সে কিছু বলছে না। […]

 মুহাম্মাদ আনোয়ারুল হক খান

“মুক্তিপথের অগ্রদূতের চরম বন্দনা” – (আমার লেখা প্রথম মুক্তিযোদ্ধের গল্প)

এক। সতের জুলাই, উনিশশো একাত্তর। গ্রামের নাম সোনাইপুর। ছোট্ট একটি দোচালা ঘর। সামনে একটি উঠোন। বাড়ির একপাশে বিস্তীর্ণ ফসলি জমি আর অন্যপাশে মাটির রাস্তা। উঠোনে মাচা টাঙ্গিয়ে সবজি চাষ করা হয়েছে। কবির বাড়ির দরজার চৌকাঠে অনেকক্ষণ ধরে ঠায় বসে আছে। সকাল থেকে একটানা বৃষ্টি হচ্ছে। কবিরের পাশে তার ছোট বোন ফাতেমাও চুপচাপ বসে আছে। বৃষ্টিটা […]

 সকাল রয়

একুশের গল্পঃ রক্তে আকাঁ বর্ণমালায় মিশে যাচ্ছি ক্রমশই…..

০১. কারফিউ চলছে ? সমস্যা নেই ! তবুও আজ মিছিলে যাবো। আমার হাত থেকে ফেস্টুনটা কেড়ে নিয়েই রাজপথে নামলো। আমি কি যাবো ? ক্লাস আছে যে!! মিছিলটা এই দিকেই আসছে !! বাকী নেই কেউ ছেলে বুড়ো সব আছে। জনতার ঢল নেমেছে। আমি তাকে নিষেধ করলাম। শুনলনা জোর কদমে হেটে গিয়ে মিশে গেলো মিছিলে। ০২. শালার […]

 মামুন ম. আজিজ

চাকা

মামুন ম. আজিজ কখনও শব্দটা ‘ভো, ভো’ আবার একটু পড়েই ‘কু ঝিক ঝিক, ঝিক ঝিক…; কিংবা ‘প্যা, পু, পু… পি.’ । একটার পর আরেকটা, অবিরত। প্রতিটা শব্দের সাথে গোল গোল চাকার ঘুর্ণন। চোখের মণির যাতনা পীড়িত ছ্রিদটিও গোলাকার। গোলাকার দৃষ্টিতে গোলাকার চাকাগুলো খাপে যেন খাপ খাওয়া তলোয়ার। অথচ ছেলেটার তলোয়ার চেনার বয়স হয়নি। টিভিতে দেখার […]

 তৌহিদ উল্লাহ শাকিল

স্কুল

//তৌহিদ উল্লাহ শাকিল// হাবিব দৌড়াচ্ছে , মাঠের মাঝ দিয়ে । ডানে বায়ে তাকানোর সময় নাই। তা তার দৌড় দেখলেই বুঝা যায়। পেছনে এখন কেউ নেই সেদিকেও খেয়াল নেই ছেলেটার । গতকাল রাত ভর যাত্রা দেখে বাড়ী ফিরে তার বাবার সামনে পড়েছে । মনু মিয়া হাবিবের বাবা , সেই সকাল থেকে বাঁশের কঞ্চি হাতে নিয়ে বসে […]

 তৌহিদ উল্লাহ শাকিল

বর্ণমালা

//তৌহিদ উল্লাহ শাকিল// ‘হাই, গ্র্যান্ড পা  । হাউ আর ইউ’( বলে আজাদ সাহেবের একমাত্র নাতী  ভেতরে চলে গেল ) আজাদ সাহেব স্থির হয়ে বসে রইলেন আরামদায়ক সোফায়। সময় কত দ্রুত গড়িয়ে যায়। এক সময় তিনি ও যুবক ছিলেন । সেই উম্মাতাল দিনে তিনি ও মুক্তির মিছিলে ছিলেন । যদিও আজ কেউ তাকে চিনে না । কেউ […]

 শৈলী টাইপরাইটার

উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর গল্পমালা: খুঁত ধরা ছেলে

বিলাতে চারিটি ভাই একদিন এক জায়গায় বসিয়া কথাবার্তা কহিতেছিলেন। তাহাদের আলাপের বিষয়, কে কি করিবে। সকলেরই মনে ইচ্ছা, একটা কিছু হওয়া চাই। সকলের ‘একটা কিছু’ত আর একরকম হয় না। তাই চার ভাই চাররকম কথা বলিল। একজন বলিল-‘আমি ইঁটের কারবার করিব। তাহাতে টাকা হইবে, আর ইঁট দিয়া আমার একখানা বাড়ি করিব।’ আর-একজন বলিল-‘দূর হ, তোর নেহাত […]

 রিপন কুমার দে

“সৌদি আরবের অপার্থিব এক ভিন্ন জগৎ”

কারাগারের এক কোনায় নিস্তব্ধ বেঞ্চিতে ঝিম ধরে বসে আছে ফারুক। কিন্তু তা সত্ত্বেও আজ ঝিম ধরা ফারুকের মুখে একটু হলেও আনন্দ খেলা করেছ। কারন আজ রাতে দেশের বাড়িতে কথা বলতে পারবে সে। কারাগার কর্তৃপক্ষ প্রতি বৃহস্পতিবার দেশে ফোন করার সুযোগ করে দেয় সকল আসামীকে। মায়ের সাথে মনের সকল কথা বলবে ভাবতেই ভাল লাগছে তার। অনেক […]

 ইরতিয়ায দস্তগীর

স্বস্তি

কী নিয়ে গর্ব করবো? আমার আর কী আছে এই পোড়া আর না পাওয়া জীবনে? না পেলাম বাবা-মায়ের কাছে, না পেলাম ভাই-বোনদের কাছে, না পেলাম দেশের কাছে! মানুষের জীবনে তো কোনো না কোনো একটি দিক দিয়ে কিছু একটা অন্তত প্রাপ্তি থাকা প্রয়োজন; যে প্রাপ্তিটুকু তার মাথাকে উঁচু করে তুলবে অন্যের কাছে। পরিতৃপ্তি বয়ে আনবে আজন্ম বৈরী […]

 তৌহিদ উল্লাহ শাকিল

স্মরণ

তৌহিদ উল্লাহ শাকিল //এক// খালি শরীরে দুলাল কে অনেকটা অ্যাথলেটদের মত লাগে । পাড়া গাঁয়ের ছেলে কিন্তু অনেক পেশীবহুল শরীর। টানটান বুক অনেক লম্বা গড়ন। সেই দুলাল কিন্তু একেবারে গরীব ঘরের ছেলে। দুবেলা খাবারের জন্য তাকে ছুটতে হয় নানা কাজে। কাজে ফাঁকি কি জিনিস তা দুলাল জানেনা। দুলাল ভাবে আমি কাজ করি মালিক তাতে আমাকে […]