কেউ ডাকে

Filed under: ‌কবিতা |

কেউ ডাকে, পাশ ফিরে নিভে গেছে বাতি
সরু গলির ভিতর, কর্দমাক্ত জীব
স্বার্থান্ধ প্রচ্ছদে নাভি দিয়ে
হ্যামিলনের বাঁশিটা চায়, ডাকে কেউ
ফিসফিস স্বরে, জোর করে গুঁজে দেয়
দিয়াশলায়ের কাঠি, সপাংসপাং ঠোঁট
উঠছে নামছে
দাঁতের প্রাচীর বেয়ে, মহা উজবুক
ব্যবধান রেখে
চতুর্দিকে ছড়িয়েছে মেলার পাহাড়,
আস্তে আস্তে দলে ভারি হবে পিঁপড়েরা
রটানো আচারে, তাই দেখে যায় লোক।

ধারালো ঘ্রাণের তাস রেখে
কবেকার অক্ষরেরা বুনে গেছে শীতের পোশাক,
মনে নেই প্রিয়? নাকপাতা ঝরে গেলে
তুমি এসো মন্ত্রের সহিস
গর্ভের আইল ধরে সজ্জিত আকাশে।

ডাকে কেউ, চোখ মেলো, দেখ রোদ, হে কাকতাড়ুয়া।

………………….
১১ কার্তিক ১৪২১

A_EAR013

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

11 Responses to কেউ ডাকে

  1. কবিতাটি মায়াবী লাগল অনেক । সকালের আলোর মত । রাতের পর রাতের পর নতুন সকালের মত।

    চলুক রাজন্য ভাই ।

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    নভেম্বর 6, 2014 at 8:44 পূর্বাহ্ন

  2. অনেকদিন পর ভালো কবিতা

    sokal.roy@gmail.com'

    সকাল রয়
    নভেম্বর 6, 2014 at 9:43 পূর্বাহ্ন

  3. কড়া কবিতা , দারুণ উপমার ঈর্ষীয় সমাহার ভাবনার শক্তিশালী বুনটের পটে ।

    imrul.kaes@ovi.com'

    শৈবাল
    নভেম্বর 6, 2014 at 5:54 অপরাহ্ন

  4. চমৎকার! তবে উজবুক শব্দটা কেমন যেন কানে লাগে। বিকল্পে কোনো নরম শব্দ হলে কেমন হতো কবিই জানেন।

    • হুম, জুলি দা। আপনি বরাবর সঠিক পথের নির্দেশ করেন, এটা মন দিয়ে বুঝি। সময় হয়ে উঠলে সার্জারি করে মেদটুকু সারাবার চেষ্টা করবো। এখন সময়-শরীর-মন কোনোটাই ভালো যাচ্ছে না তেমন।

      ……………….
      শুভ হোক আপনার।

      রাজন্য রুহানি
      নভেম্বর 16, 2014 at 3:28 অপরাহ্ন

  5. “নীরব আধারে আকাশের কোনে
    তোমার ছোয়া লাগে, শুধু মন জানে…”

    কে ডাকে ?

  6. শব্দের ব্যবহারে আপনার সচেতন প্রয়াস প্রশংসনীয়।

    দাঁতের প্রাচীর বেয়ে
    রটানো আচারে
    ধারালো ঘ্রাণের তাস
    নাকপাতা

    এ-রকম কিছু শব্দবন্ধ ও প্রয়োগ কেবল ভালোই লাগে না পাশাপাশি আবেশ ছড়ায় ভ্ন্নি ব্যাঞ্জনার।

    “ধারালো ঘ্রাণের তাস রেখে
    কবেকার অক্ষরেরা বুনে গেছে শীতের পোশাক,
    মনে নেই প্রিয়? নাকপাতা ঝরে গেলে
    তুমি এসো মন্ত্রের সহিস
    গর্ভের আইল ধরে সজ্জিত আকাশে”

    শুভকামনা জানুন কবি।

    সুমন আহমেদ
    নভেম্বর 30, 2014 at 5:35 পূর্বাহ্ন

You must be logged in to post a comment Login