কিন্তু সে অপেক্ষা করতে পারলো না

বিষয়: : এলোমেলো |

hhhমনে করুন আপনি একজনকে ভালোবাসেন, অনেক ভালোবাসেন এবং যাকে ভালোবাসেন সেও আপনাকে অনেক ভালোবাসে।
মান অভিমানে আপনাদের মধ্যে একটা দূরত্বের সৃষ্টি হলো; দূরত্বটা খুব গভীর হলো।

অভিমানের সুতো ধরেই আপনাদের দূরত্ব প্রসারিত হলো এবং একটা পর্যায়ে সুতোটি ছিড়ে গেলো। এখন দুজন বিচ্ছিন্ন। দূরত্ব বাড়তেই থাকলো, এক মাস; দুই মাস; তিন মাস করে ছয় মাস পার হয়ে গেলো।

মনে করে নিলেন এই অভিমান এতো সহজেই ভাঙ্গবেনা, একা চলে চলে আপনিও অভ্যস্থ হয়ে গেলেন।
এখন আপনি আর এইসব বিষয় নিয়ে মাথা ঘামান না; কারণ আপনি একা চলতে শিখে গেছেন। মাঝে মধ্যে প্রিয় মানুষটির কথা প্রায়ই মনে হবে, বন্ধুদের সাথে তাকে নিয়ে অনেক আলোচনা হয় এবং তাদের বলে বেড়ান আপনি তাকে এখনো অনেক ভালোবাসেন। বন্ধুরা মিটমাট করতে আসবে, আরেকটি অভিমান আপনাকে ঝেকে বসতে পারে; আপনি বলবেন “না! দরকার নেই মিটমাটের। যেভাবে চলছে সেভাবেই চলুক”

যেভাবে আছে সেভাবেই চলতে থাকলো বছরের পর বছর; আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার খবর নিলোনা এমনকি আপনিও না।

কয়েক বছর পর হয়তো আপনি কোথাও বেড়াতে গেলেন, কোন একটি পরিচিত মুুখ দেখে থমকে দাঁড়ালেন! শাড়ী পরিহিতা একটি মেয়ে; সাথে কোন এক পুরুষ। আপনি দূর থেকে লক্ষ্য করলেন, বুঝা গেলো মেয়েটি সেই পুরুষটির স্ত্রী; আপনারই প্রিয়তমা।

আপনি ঠিকই একা চলতে শিখে গেলেন; কেউ একজনের জন্য অন্তরে ভালোবাসা পুষে রাখলেন। হয়তো ভেবেছিলেন কোন একসময় দেখা হয়ে যাবে; তখন সব অভিমান ভেঙ্গে যাবে নিমিষেই; দুজনের চোখ বেয়ে জল আসবে দুজন দুজনকে বলবেন “তোমারই অপেক্ষায় ছিলাম”।

আপনি ঠিকই অপেক্ষায় ছিলেন, আজো অপেক্ষায় আছেন। কিন্তু সে অপেক্ষা করতে পারলো না

আল আমিন বিন হাসান (ইবনে হাসান)
২৩-০৭-২০১৫

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

মন্তব্য করার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে। Login