Home » Entries posted by মুহাম্মাদ আনোয়ারুল হক খান
mahkbd@gmail.com'
Entries posted by mahkbd
জন্মস্থানঃ পিরোজপুর জন্ম তারিখঃ নভেম্বর ৭, ১৯৮১ পড়াশুনাঃ ফার্মেসিতে সম্মান, এমবিএ বিশেষ ব্যক্তিত্বঃ নবিজী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান (তবে আমি আওয়ামীলিগার না। জামাত-শিবির সহ সব রাজাকারকে অপছন্দ / ঘৃনা করি, কিন্তু ইসলামি শাসন এর অনেক কিছুই আবার আমার ভালো লাগে। আমি মনে করি ইসলামি শাসন আর জামাত-শিবির এক না। জুলাই ১৫, ২০১১ থেকে সব ধরনের রাজনৈতিক আলোচনা থেকে অবসর নিয়েছি। আমার চোখে এই দেশে এখন কোন দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নাই। আমার এই মন্তব্য শুনে কষ্ট পেলে আমাকে ক্ষমা করবেন।) প্রিয় লেখকঃ মুহম্মদ জাফর ইকবাল, হুমায়ুন আহমেদ, হেনরি রাইডার, জুল ভান প্রিয় টিভি সিরিয়ালঃ Spellbinder, Spellbinder 2: Land of the Dragon Lord, The girl from tomorrow, Tomorrows end, Time Trax, MacGyver, Alice in Wonderland, The Chronicles of Narnia প্রিয় টিভি নাটকঃ কোথাও কেউ নেই, অয়োময়, রুপনগর, বহুব্রিহী, বার রকম মানুষ প্রিয় টিভি শোঃ ইত্যাদি, সিসিমপুর, Pumpkin Patch Show এখন লিখছিঃ বিজ্ঞান-কল্পকাহিনি উপন্যাস ই-মেইলঃ mahkbd@gmail.com (always online) প্রিয় উক্তিঃ নিজে স্বপ্ন দেখি আর সবাইকে স্বপ্ন দেখাতে চাই অন্য বিশ্বাসঃ Parallel World- “I want to believe” কনফুসিয়াসের এই লাইন টা আমাকে খুব টানেঃ ... journey of a thousand miles begins with a single step আপাতত এটুকুই…

চলন্তিকার ঈদের ইবুকের জন্য লেখা আহবান

প্রিয় লেখক বন্ধুরা আর কিছুদিন পরই রোজা। তারপর ঈদুল ফিতর। ঈদ অর্থ আনন্দ। আনন্দ তো জীবনে এক দুবার নয়, বার বার বহুবার এসেছে। রোজা আর ঈদ নিয়ে ছোট বেলা থেকেই আমাদের বহু স্মৃতি। ছোটবেলাতে ঈদে সিমাই – ফিরনী – খিচুড়ী – মিষ্টি খাওয়ার ধুম পড়তো । সালামি পেতাম। নানা বাড়ি, দাদা বাড়ি যাওয়া হত। মামা […]

(উৎসর্গঃ ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ স্বাধীনতার জন্য শুরু হয়েছিল যে প্রাণপণ যুদ্ধ, তার অবসান ঘটে ১৬ ডিসেম্বর- আমাদের চূড়ান্ত বিজয়ের মধ্য দিয়ে। কিন্তু এ বিজয় এসেছিল এক সাগর রক্তের বিনিময়ে। তাই বিজয়ের আনন্দের বিপরীতে আছে স্বজন হারানোর বিষাদ। বিজয় দিবসের প্রভাতে শহীদদের উদ্দেশে আমরা বলি: আমরা তোমাদের ভুলব না।)    ‘একটি বাংলাদেশ, তুমি জাগ্রত জনতার/ […]

Continue reading …

২ “তুমি কিভাবে বুঝলে আমি এখানে?” মাইক জানতে চাইল। “তোমার ঘর খালি দেখে মনে হল তুমি হয়তো এখানে।” মাইক কিছুই বলল না, শুধু একটা দীর্ঘশ্বাস ছাড়ল। সানি তরল গলায় হেসে প্রশ্ন করল, “আমি কখনো বুঝতে পারি না তুমি কেন প্রতিদিন অর্থহীনভাবে এখানে বসে সূর্যাস্ত দেখ?” মাইক কিছু না বলে শুধু হাসল। “তুমি যে অর্বাচীনের মত […]

Continue reading …

১. দক্ষিণ প্রশান্তমহাসাগরীয় পর্বতাবৃত অঞ্চলের দুটি বৃহৎ পর্বতের মাঝের উপত্যকায় রয়েছে মানুষের বসতি, যা একটি বৃহৎ এবং সুন্দর ভবনকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। অথচ হঠাৎ করে ভবনটিকে চোখে পড়ে না। স্থাপত্যশৈলীতে অসাধারণ কোন বৈশিষ্ট্য না থাকলেও আধুনিক উপকরণের কোন অভাব নেই। এর প্রবেশপথ যেমন কঠোর ভাবে সংরক্ষিত তেমনি জীবনযাপনের পদ্ধতিও অত্যন্ত নিয়ন্ত্রিত। কোন বাহুল্যতা নেই, […]

Continue reading …

এক। সতের জুলাই, উনিশশো একাত্তর। গ্রামের নাম সোনাইপুর। ছোট্ট একটি দোচালা ঘর। সামনে একটি উঠোন। বাড়ির একপাশে বিস্তীর্ণ ফসলি জমি আর অন্যপাশে মাটির রাস্তা। উঠোনে মাচা টাঙ্গিয়ে সবজি চাষ করা হয়েছে। কবির বাড়ির দরজার চৌকাঠে অনেকক্ষণ ধরে ঠায় বসে আছে। সকাল থেকে একটানা বৃষ্টি হচ্ছে। কবিরের পাশে তার ছোট বোন ফাতেমাও চুপচাপ বসে আছে। বৃষ্টিটা […]

Continue reading …

এক/ অপেক্ষার প্রহর অনেক কষ্টের। ধৈর্যেরও। সাতটা দিন রুনের খুব অস্থিরভাবে কাটে। বিজ্ঞানী জেডনের সাথে একজন প্রায়শূণ্য মহাকর্ষবলীয় এলাকা ঘুড়ে এসেছেন, এমন একজন আসছেন। নোরা নক্ষত্রপুঞ্জ, বৃত্তাকারে ঘুড়ে বেড়ানো কয়েক কোটি মাইল বিস্তৃত ধূমকেতু, পর পর দশটি মৃত নক্ষত্র, নক্ষত্রের কবরস্থান, মহাকাশে হটাৎ করে সৃষ্টি হওয়া মহাজ্যোতি, তারপর বিকশমান আরেকটি প্রাণীজগৎ কিংবা নতুন কোন বিশ্বব্রাম্মান্ড- […]

Continue reading …

(ব্লগ এ নাম লেখালাম। কি লিখব কি লিখব ভেবে ভেবে একটা বিজ্ঞান-কল্পকাহিনি লেখা শুরু করলাম। ) শেষবার যখন পরিবেশ পরিবর্তন হয়ে গেল তখন রুনের বাবা এক অজ্ঞাত অসুখে হটাৎ করেই মারা যান। রুনের বাবা ছিলেন বসতির দলপতি। বসতিটি খুব একটা বড় নয়। নামও নেই। কদিন আগেও সংখ্যা দিয়ে বুঝানো হতো। ইদানিং ত্রিনার বলে গ্যালাকটিক মানচিত্রে […]

Continue reading …