প্রকাশিত হলো বর্ষার ই-বুক ‘বৃষ্টির দিনে।

প্রকাশিত হলো প্রতীতি প্রকাশনীর তৃতীয় ই-বুক ‘বৃষ্টির দিনে।

প্রতীতি প্রথম দু’টি ই-বুক ছিল চলচ্চিত্র বিষয়ক। এবারে ই-বুকটি করা হলো বর্ষা নিয়ে। খুব বেশি কিছু বলে পাঠকদের ধৈর্যচ্যুতি ঘটাবো না। সংক্ষেপে যা বলার তাই বলে সম্পাদকীয়টা সংক্ষেপেই শেষ করবো।

ই-বুকের পাতার অঙ্গসজ্জায় গতানুগতিক ডিজাইনের বাইরে এসে কিছুটা ভিন্নতা আনার চেষ্টা করেছি আমরা। সাধারণ নিয়ম-কাঠামোর বাইরে এ ধরণের এক্সিপেরেন্ট করার ইচ্ছেটা অনেকদিন ধরেই মনের মধ্য ছিল। কিন্তু চেনা পথের বাইরে পা বাড়ানোর ঝুঁকি নিতে কিছুটা সঙ্কোচবোধ কাজ করছিল। বর্ষার সাথে ভাসিয়ে দেওয়ার কেমন জানি একটা সম্বন্ধ আছে। বর্ষার ই-বুক করতে গিয়ে মনে হলো সঙ্কোচবোধটাকে ভাসিয়ে দেওয়ার মতো এরকম উপযুক্ত উপলক্ষ আর হয় না।

যথারীতি পাঠের সুবিধার জন্য প্রত্যেক পেজ নাম্বারে হাইপার-লিঙ্ক যোগ করা হয়েছে। প্রত্যেক পাতার নীচের পেজ নাম্বার ক্লিক করে সূচিপত্রে ফিরে আসা যাবে আবার সূচিপত্রের যে কোনো লেখার উপর ক্লিক করে কাঙ্ক্ষিত লেখায় সহজে যাওয়া যাবে।

আন্তর অনুপ্রেরণা দিয়েছেন যারা, নিরবচ্ছিন্ন সমর্থন যুগিয়েছেন যারা, যারা এ প্রকাশনটি পাঠকদের হাতে তুলে দিতে নানাভাবে সহযোগিতা করেছেন – কখনো সোৎসাহে, কখনো উপরোধে – সে-সব মানুষদের স্মরণ করি কৃতজ্ঞচিত্তে।

অনেক ভুল-ক্রুটি রয়ে গেলো সে জন্য পাঠকদের কাছ থেকে অগ্রিম ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।

এই ই-বুকটি বিনামূল্যে বিতরণ করা যাবে। তবে ইবুকটি কোন ক্রমেই বিক্রয়যোগ্য নয়। প্রকাশিত সব লেখার স্বত্ব লেখক সংরক্ষণ করেন। সংকলনে প্রকাশিত কোন লেখা সংশ্লিষ্ট লেখকের অনুমতি ব্যতীত হুবুহু অথবা আংশিকভাবে কোন প্রকাশনা মাধ্যমে প্রকাশ করা যাবে না।

ই-বুক সংক্রান্ত যে কোনো বিষয়ে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন proteeti.books@gmail.com এই ঠিকানায়।

সম্পাদক
সাইফুজ্জামান খালেদ
সম্পাদনা পরিষদ
কাউসার রুশো
আমিনুল ইসলাম
মাসুম আহমেদ

আর দেরি নয়। এবার তবে ডাউনলোড শুরু হয়ে যাক । আর আমরা প্রস্তুত আপনাদের তীক্ষ্ণ সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হতে। কারন আমরা জানি আপনাদের সমালোচনার আড়ালেই লুকিয়ে আছে টিম প্রতীতির প্রতি অগাধ ভালোবাসা আর বিশ্বাস। তাই ইবুকের সব সাফল্যের কৃতিত্ব আপনাদের। আর সব ব্যর্থতার দায়ভার আমরা মাথা পেতে নিলাম।

সবাইকে আষাঢ়ের শুভেচ্ছা।

ডাউনলোড লিঙ্ক

mskhaled.bd@gmail.com'
বলতে পারেন ব্লগে আমার লেখাগুলো একান্ত নিজস্ব ছেঁড়া ছেঁড়া স্বপ্নগুলোকে জোড়াতালি দিয়ে কোনমতে সেলাই করে জীবনের পথে ক্লান্ত পায়ে হেঁটে যাওয়ার সময় পিছেনে ফেলে যাওয়া কতগুলো সুখস্মৃতি। ব্লগ আমার কাছে যাপিত জীবনের বৈচিত্রহীন পৌনঃপুনিকতায় আবদ্ধ চার দেয়ালের গায়ে আলোকিত ছোট্ট একটি খোলা জানালা;সে খোলা জানালা দিয়ে প্রতিনিয়ত ঠিকরে পড়ে এ টুকরো সোনালী আলো আমার ভিতর বাড়িতে।এ টুকরো আলো আর এক টুকরো অন্ধাকারের মধ্যে পার্থক্যটা কি জানেন? এক টুকরো অন্ধকার তার চারপাশটাকে অন্ধকারাচ্ছন্ন করার ক্ষমতা রাখে না; শুধুমাত্র তার নিজস্ব আয়তনটুকো জুড়েই তার যত দৌরাত্ম। কিন্তু এক টুকরো আলো নিজেকে আলোকিত করার পাশাপাশি চারপাশটাকে আলোকিত করে, সে অন্ধকারের মতো অত কৃপণ না। ব্লগের জানালা দিয়ে ঠিকরে পরা আলোটুকু আলোকিত করে রাখে আমার অবসর এবং কর্মমূখর মুহূর্তের একান্ত ক্ষণগুলো। ব্লগের ছোটো এ খোলা জানালা দিয়ে আকাশের বিশালতাকে হয়তো মাপা যায় না কিন্তু আকাশের নীলটুকু অনুভব করা যায়। সে নীলের আঁচরে মনের ক্যানভাসে আঁকা যায় নানা রঙের ছবি। হয়তো যেমন চাই তেমন পারি না; তারপরও অন্তত পক্ষে যতটুকু পারি ততটুকু করার চেষ্টা… —–[e-mail: mskhaled.bd@gmail.com / msz_khaled@yahoo.com] Skype Name: saifuzzaman.khaled
শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

মন্তব্য করার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে। Login