Home » Entries posted by কাজী হাসান
quazih@yahoo.com'
  লেখক: কাজী হাসান
  

যদি তাই হয়……..

মেগাস্টার শাহ রাজ আর নাই। অল্প দিনেই বিশাল উত্থান। ছবিতে শাহ রাজ থাকলেই বক্স অফিস হিট। তার থেকে শিডিউল পাওয়া মানে এক বছর আগে টাকা দিয়ে বসে থাকা। তবে তার একটিং করা ছবি মুক্তি পাওয়ার  পর লগ্নি করা সব টাকা পাঁচ-সাত গুন হয়ে ফিরে আসে। প্রযোজকদের হাসি তখন দেখে কে? বত্রিশ খানা দাঁতের প্রদর্শনী চলতে […]

পিঙ্ক স্লিপ

2 Comments

এম বি এম কর্পোরেশান। নেটওয়ার্ক ডিপার্টমেন্টে “পটল্যাক স্প্রেড” হচ্ছে। ব্যাপারটা প্রতি কোয়ার্টারে এক বার করে হয়। সবাই নিজের নিজের দেশের একটা করে  খাবার আইটেম নিয়ে আসে। তার পরে সবাই মিলে খাওয়া। অন্য দেশের খাওয়া মুখে দিয়ে টেস্ট করা। ভাল লাগলে আর একটু নেওয়া। আর সাথে কিছু হৈ চৈ করা আর কি! অনেক দেশের  বিভিন্ন ধরণের […]

Continue reading …

প্রিয় বাঙালি ভাই ও বোনেরা, আপনাদের মধ্যে কি এমন কেও আছেন যিনি মশা চিনেন না। যদি ভাল করে মশা সম্প্রদায়ের সাথে পরিচয় না  থাকে, তা হলে একটু অপেক্ষা করুন। আমাদের জাতীয় জীবনে মশা যে কি করছে তার সম্যক ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করা হবে। কি যেন গানটা? “তবে কি আর ভাল লাগে, যদি সন্ধ্যা হলে ভো […]

Continue reading …

মা! মা!!

No Comment

বুকটা ফেটে চৌচির হয়ে,  ভিতরের হৃৎপিন্ডটা বেরিয়ে আসতে চাচ্ছে। একটা আস্ত বটগাছ উপড়ে ফেলার অবস্থা। যে অদৃশ্য বন্ধন এতদিন একেবারে কাছে ধরে রেখেছিল, তা একটা প্রচণ্ড টানে যেন ছিঁড়ে যাচ্ছে। সুমনের প্লেন ঢাকার আকাশ ছেদ করে যত উপরে উঠছে, ওর তত ভীষণ খারাপ লাগছে। কি যেন একটা থেকে সে আলাদা হয়ে যাচ্ছে। বুঝতে পারছে না। […]

Continue reading …

মেঘের কি রঙ?

3 Comments

হবু বর তার এক বন্ধুকে নিয়ে মেয়ে দেখতে এসেছে। বরের নাম তৌফিক। তিন সপ্তাহের জন্যে দেশে এসেছে। বিয়ে করে, নেপালে হানিমুন করে; পারলে মেয়ের ভিসার ব্যাবস্থা করে যাবে। পরে টিকেট পাঠালে মেয়ে যাবে এমেরিকায়। সব মিলিয়ে মেলা কাজ। এর মধ্যে আবার পাঁচ দিন পার হয়ে গেছে। তা ছাড়া বউ নিয়ে গ্রামের বাড়ি যেয়ে নানীর সাথে […]

Continue reading …

সিংহ সমাচার

1 Comment

সিংহ। আব্দুল করিম চোখ দুটো রগড়ে নিল। এইটা কি করে সম্ভব। ঢাকার জিপিওর সামনে মনে হচ্ছে একটা সিংহ দাঁড়িয়ে আছে। কিন্ত সাইজে চিড়িয়াখানার সিংহ থেকে পাঁচ গুন বড়। আব্দুল করিম বুঝার চেষ্টা করতে লাগল, তার মাথাটা আসলে ঠিক আছে তো! রাতের ডিউটি করে করে নিশ্চয়ই মাথাটা পুরোপুরি গেছে। বউয়ের কথাটা বুঝি সত্যি হয়ে গেল। না […]

Continue reading …

দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের একটা দেশ কলাম্বিয়া। সেখানকার এক খুব বিখ্যাত লেখক, গল্পকার গ্যাবরিয়েল মারক্যুয়েজ। ১৯৮২ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন। তার একটা উদ্বৃতি দিয়ে আজকের লেখালেখি আরম্ভ করছি। তিনি বলেছিলেন, কোন কিছু শেষ হওয়ার জন্য দুঃখ করো না………বরং ঘটনা ঘটার জন্যে আনন্দিত হও (“Don’t Cry because it is over… Smile because it happened.”)। পৃথিবীর যারা […]

Continue reading …

“আগে জানলে, তোমাকে বিয়েই করতাম না।“ “কি জানলে?” “এই মেজাজ আর এই চেহারা ওয়ালা মেয়েকে পাগল ছাড়া আর কেও বিয়ে করে?” “তা হলে প্রেমে পড়ে মজনু হয়েছিলে কেন? আবার যে দুই বার স্যুইসাইট করতে নিয়েছিলেন জনাব। সেই কথা নতুন করে মনে করে করিয়ে দিতে হবে না-কি?” “সেই মেয়ে তো আর এখনকার তুমি না?” “দেখ বেশী […]

Continue reading …

১৯৭১

10 Comments

কিছু শব্দের অপেক্ষায় আনোয়ারা খালা ভাত, ডাল, আলু ভর্তা রাধা হয়েছে সেই কখন। উঠোনে অবশেষে শোনা গেলো কিছু পায়ের শব্দ, দরজায় মৃদু টোকা । “খালা, দরজা খোল, আমরা, আমরা তুমার মুক্তিযোদ্ধা  ছাওয়াল গো খালা”। আনোয়ারা খালা দরজা খুলতেই, চার শিশু যেন ঝাঁপিয়ে পড়লো মায়ের বুকে। নিজের দুই ভাগ্নে মানিক, রতন আর তাদের বন্ধু শ্যামল, কিরণ। […]

Continue reading …

সালটা ১৯৬২। ঢাকা স্টেডিয়ামে প্রথম ডিভিশানের ফুটবল  খেলা। খেলছে ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং আর নারায়নগঞ্জের ঢাকেশ্বরী কটন মিল দল। মোহামেডান দলের জয়টা দরকার। শুধু পয়েন্টের জন্যে না। এর সাথে সম্মানের প্রশ্ন জড়িত।  ঢাকার বাইরের দল কটন মিল, প্রথম  বছর তারা খেলেছে ঢাকায়। অখ্যাত নাম না জানা নতুন খেলোয়ারদের  দিয়ে গড়া দলকে এখনো কেউ হারাতে পারে নি। […]

Continue reading …

“ রক্ত দিয়ে পেলাম শালার এ কেমন স্বাধীনতা?” এরশাদ বিরোধী আন্দোলন যখন তুঙ্গে, তখন এই ছড়ার লাইনটা খুব বিখ্যাত হয়েছিল। নব্বই দশকের প্রথম দিকে বাংলার জনগণ ভাবছিল, স্বৈরশাসক এরশাদের পতন হলেই, মানুষ দেশকে নিয়ে যে স্বপ্ন দেখেছিল,তা সত্যি হবে। হাসি, আনন্দে ভরে উঠবে দেশ। একাত্তরে যে কারনে জাতি যুদ্ধ করেছিল, তা হয়তো চুড়ান্তভাবে বাস্তব হবে। […]

Continue reading …

“আপু, আপু এতো শব্দ কেন? কিসের শব্দ? এতো জোরে কেন?” ছোট বোন নুমার হৈ চৈ আর ধাক্কা ধাক্কিতে রুমার ঘুম ভেঙ্গে গেল। রুমার ঘুম ছোট বেলা থেকেই কিছুটা গাঢ়। মায়ের কথায়, আমাদের রুমার গায়ের উপর দিয়ে ট্রেন চলে গেলেও ওর ঘুম ভাংবে না। নুমা অনেক কষ্টে রুমার ঘুম ভাঙ্গাল। চারিদিকে শুধু গোলা গুলির শব্দ আর […]

Continue reading …
Page 1 of 212