তৌহিদ উল্লাহ শাকিল

এক সকালে

Decrease Font Size Increase Font Size Text Size Print This Page

 

//তৌহিদ উল্লাহ শাকিল//

জামিল সাহেব বাসায় একা। তার স্ত্রী মেয়েটাকে নিয়ে বাপের বাড়ি গেছে সেই সাতসকালে । ফিরতে রাত হবে । অফিসে অনেক কাজ । তবু আজ অফিসে গেলেন না তিনি । ভাবেন মাঝে মাঝে শরীর কে রেস্ট দেওয়া প্রয়োজন। তবে এর আগে কোন দিন তিনি অফিস কামাই করেননি । আজ কেন করছেন নিজে ও জানেন না ।

দেশ রসাতলে যাচ্ছে বলে সকলে চেঁচায় তাতে কি কোন সমাধা হয় । হয় না , এতে করে জামাল সাহেবদের মত লোকদের পকেট ভারী হয় । নিত্য নতুন দামী গাড়ী আসে বিদেশ থেকে । সরকারি আমলাদের পকেটে কিছু পুরে দিলে ট্যাক্সের পয়সা অনেক কম লাগে । সরকারি আমলারা আবার এসব করে নির্দ্বিধায় । ভাবেন দেশটা তাদের , যখন যা খুশী ইচ্ছে মত করার অধিকার তাদের আছে। জামাল সাহেবের মত মজুদদার ব্যাবসায়ীরা তাদের ভরসা । তারা আছেন বলেই তো মাসে মাসে বাড়তি কিছু উপহার মিলে। দ্রব্য মুল্যের দাম বৃদ্ধি হলে তার কি আসে যায় । তার কাছে তো টাকার অভাব নেই । আর অভাব হলে জামাল সাহেবরা তো আছেন । তাদের কাছে ভিক্ষুকের মত হাত পেতে নিতে লজ্জা কোথায় ?

আজ অনেক কিছু মনে পড়ে যায় জামাল সাহেবের । বারান্দায় ইজি চেয়ারে বসে আরো এক কাপ কপির জন্য বললেন সদ্য কাজে আসা সুন্দরী মেয়েটাকে। মেয়েটার শরীরের গঠন একেবারে……।গরিব ঘরের মেয়ে না হলে এই মেয়ের জন্য লাইন পড়ে যেত অনায়াসে । এক সময় নিজে অনেক সততার কথা বলে বেড়াতেন কলেজের ক্যাম্পাসে। সেই সততাকে তিনি নিজে গলা টিপে হত্যা করেছেন বহু বছর আগে। জীবনে বেঁচে থাকার জন্য যতটুকুর প্রয়োজন তার সবটুকুই ছিল , কিন্তু কেন যে এমন হয়ে গেলেন তা নিজে ও জানেন না জামাল সাহেব। এর মধ্যে কাজের মেয়ে কপি দিয়ে গেছে , ধুমায়িত কপির ঘ্রানের সাথে অন্য একটা মিষ্টি সুবাসে তার চমক ভাঙ্গে।

কাজের লোক হাবিব বাগানে পানি দিচ্ছে মনের আনন্দে । সেই সাথে গান গাইছে । জামাল সাহেব হাবিব কে ডাকলেন । জামাল সাহেবের ডাক শুনে হাবিব মুহরতে হাজির ।

-শোন হাবি(জামাল সাহেব হাবুব কে এই নামে ডাকে) বাজার থেকে দশ কেজি খাসির মাংস নিয়ে আয়।

-স্যার , গতকাল এনেছি তো ।

-আজ আন, তাজা খেতে মন চাইছে।

-জি, আচ্ছা । বলে হাবি চলে গেল

জামাল সাহেব নিজের রুমে গেলেন । সদ্য আসা কাজের মেয়েকে ডাকদিলেন ।

-এই রহিমা এদিকে আয়।

রহিমা সাহেবের ঘরে আসে । জামাল সাহেব রহিমার অনেক খোঁজ খবর নেন । রহিমার বাসায় অসুস্থ মায়ের চিকিৎসার জন্য পাঁচশত টাকা গুঁজে দেন রহিমার হাতে । নানা কথায় আর আশ্বাসের গল্প চলতে থাকে তখন জামাল সাহেবের ঘরে । বাহির থেকে কিছু শুনা যায় , কিছু যায় না ।

পরিশিষ্ট ঃ হাবিব মাঝ পথ থেকে ফিরে আসে সোজা উপরে উঠে যায়। এমন সময় জামাল সাহেবের দরজা খুলে রহিমাকে কাঁদতে কাঁদতে বেরুতে দেখে হাবি। রহিমার গালে মুখে অনেক গুলো দাগ, পরনের কাপড় ছেঁড়া । এরপর …………………………………।।  

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।


10 Responses to এক সকালে

  1. imrul.kaes@ovi.com'
    শৈবাল অক্টোবর 29, 2011 at 2:17 অপরাহ্ন

    সন্দেহ নেই অণুগল্প আর এতেও সন্দেহ নেই আপনার সহজাত লেখার গুণ আছে ।

    শাকিল ভাই আপনাকে যতটুকু পড়ছি ততটুকুতেই একটা কথা বলি আগেও বলতে চেয়েছি … যা আবার বললে একটু টুকে নিচ্ছি ,
    ইবনে খলদুন থেকে
    the art of discourse whether in verse or prose lies in words not in ideas . Ideas are common to all and are at the disposal of every understanding to employ as it will needing no art ‘

    কথাটা এমন আমার লিখব আমাদের কথাই তাতে মিলে যাবে আপনি আমিতে , কিন্তু এটাও সত্য শরীর যে অংশটুকু অনাবৃত তা বারবার ব্যহারের সংবেদনতা হারাতে থাকে , তেমন সাহিত্যও একই ধরণ হয়ে গেলে কাছাকাছি হলে আলাদ করে ভালো লাগাটা আর হয়ে ওঠে না । শওকত ওসমান থেকে একটা কথা মুখস্ত করেছি একটু খারাপ শুনায় তারপরেও আমি মান্য করি ” শিল্পের ক্ষেত্রে ভ্যাঁজর ভ্যাঁজর পুনরাবৃত্তির চেয়ে অসফল প্রচেষ্টা ঢের বেশি কাম্য ”

    আপনি সমাজ নিয়ে লিখেন তাতে আমি বরাবর সালাম জানাই । আর সচেতনতা জাগাতে পোস্টার আছে খবরের কাগজ আছে সেমিনার আছে গনমাধ্যম আছে আপনি যদি ভাবেন আপনার সাহিত্যেও থাকবে , আমি বলব রেড স্যালুট কমরেড । আর অনেকেই লিখছে সমাজবোধ থেকে … তাই আলাদা হয়ে নেয়া দরকার , আপনাকে একই সুরে করে সমাজের কথা বলতে হবে এক হয়ে তবে সাহিত্যের প্রয়োজনে স্বরটা আলাদা হওয়া চাই । যেন একই শ্লোগান থেকেই বলতে পারবো ঐটা শাকিল ভাইয়ের চিত্‍কার ।
    … গল্প আলাদা হোক ভাবনায় না আঙ্গিকে , সময় নিন নিজের আলাদাটুকু বের করুন ।
    ভালো থাকুন

    • touhidullah82@gmail.com'
      তৌহিদ উল্লাহ শাকিল অক্টোবর 30, 2011 at 3:33 পূর্বাহ্ন

      অনেক অনেক ধন্যবাদ শৈবাল দা । আপনার মতামত পরামর্শ সব মনযোগ সহকারে বারকয়েক পড়লাম । বেশ বলেছেন । চেষ্টা করি প্রতিনিয়ত । এরপর ও যা বেরিয়ে আসে সেসব আমাদের সমাজের নিত্য অসংগতি । লেখাকে ভালবাসি তাই লিখি । একটা কথা বলার দরকার প্রবাসের মাটিতে বসে ছয়টা পাঁচটা অফিস করে লিখতে কষ্ট হয় বেশ , তখন বেশী ভাবনার সময় কোথায়। আপনার কথা গুলো মনে গেঁথে নিলাম অবলীলায় । আশীর্বাদ করবেন তাহলে একদিন সবাই বলতে পারবে এটা কার চীৎকার । আপনার জন্য অনেক ভালোবাসা রইল ।

  2. nely_paul@yahoo.com'
    নেলী পাল অক্টোবর 30, 2011 at 12:04 পূর্বাহ্ন

    সুন্দর গল্পের জন্য কৃতজ্ঞতা রইল।

  3. রাজন্য রুহানি অক্টোবর 30, 2011 at 9:36 পূর্বাহ্ন

    Shuvechsa.

  4. riton1975@gmail.com'
    জাহিদুল কবির রিটন অক্টোবর 30, 2011 at 11:01 পূর্বাহ্ন

    শুভেচ্ছা

  5. imrul.kaes@ovi.com'
    শৈবাল অক্টোবর 30, 2011 at 6:19 অপরাহ্ন

    আপনার জন্যেও আমার ভালোবাসা আর শ্রদ্ধা বিনীত হোক । প্রবাসে থেকেও যারা বাংলাকে এখন ধরে রেখেছে তাদের আমি অনুভব করার চেষ্টা করি চোখবন্ধ করে … জুলিয়ান সিদ্দিকী , রিপন দাদা , আজিজ স্যার … আমি জানি তাঁরা প্রবাসী তারপরেও আমার চেয়েও খাঁটি বাঙালী তাঁদের জন্য অন্যরকম এটা টান গেঁথে থাকে হৃদপৃণ্ডের মাটিতে , আর এখন থেকে আপনার জন্যেও আরেকটা শিঁকড় গেঁথে দিচ্ছি । আপনি আমার শাকিল ভাই ভালো থাকবেন , আমার জন্য দোয়া করবেন ।

    • touhidullah82@gmail.com'
      তৌহিদ উল্লাহ শাকিল অক্টোবর 31, 2011 at 10:21 পূর্বাহ্ন

      আপনাদের ভালোবাসা আমি এবং অন্য যারা আছি তারা লেখার চেষ্টা করি । ভালোবাসা কখন হয়ে যায় , কেউ জানেনা । ভালবাসি ভালবাসব সব মিলিয়ে আপনার কাছাকাছি থাকতে পারলে খুশী হব । অনেক শ্রদ্ধা আর ভালবাসা এবং শুভেচ্ছা রইল দাদা তোমার জন্য

You must be logged in to post a comment Login