তন্ত্রমন্ত্রের তেলেসমাতি

Filed under: ‌কবিতা |

ঝরাপাতা পাঠ শেষেই বরং তুমি এসো স্বাধীনতার চাদরে ঢাকা মুক্তির ঋতু। গুহাকাল পেরিয়ে চোখফোটার পর রক্তছাপা কাপড়ের আলিঙ্গনে এখনো ঘন হয়ে আসে মানুষের মুখ, নিদেনপক্ষে এও জানা ভালো— অঙ্কুরিত চারার প্রতিই চিরন্তন লোভ পোকাদের আর দিকে দিকে বাড়ন্ত বয়স থামিয়ে দিতে অবিরত লালা ছাড়ছে ছাগলের জিহ্বা। শঙ্কার ডঙ্কা বাজে অষ্টপ্রহর; প্যাঁচে প্যাঁচে গিট্টু লাগলে দৃষ্টিরা ক্লান্ত হয় পটাপট, ঘোলাজলে তখন শিকারের মচ্ছব। ভেড়ার রাষ্ট্রে ভেড়াবনে না যায় যদি আমজনতা— কী আর থাকে মর্যাদা, বলো? সুবোধ সাধুর গেরুয়া ওড়ে গেলে আমি-তুমির শরীর সব একরঙা পাখির খাঁচা। আহা মুক্তি, আহা সুস্বাদু স্বাধীনতা; শিকলে শিকল জোড়া দিয়ে দৈর্ঘ্য বেড়েছে শুধু, কেন্দ্রে তো বাঁধা আছেই প্রান্ত— পায়ে পায়ে শিকল তদুপরি বাহাদুর খেতাব দিয়েছ বটে, বাহাদুরির যন্ত্রমন্ত্র যত পরিবারতান্ত্রিক ঈশ্বরীর কাছে জব্দ।
মুক্তির জন্য যুদ্ধ শেষ হবার নয়; যেদিকে যাই দেখি— বিনীত পথেরা বিলীন হয়েছে কৃষ্ণগহ্বরবেশী নদীর তলায়। ঘাটে অপেক্ষমাণ কেলাব্দুপথিকেরা; গণতন্ত্রের নাও ভাসিয়ে মাঝিরা নৌকাবাইচে ব্যস্ত ভীষণ। ওপারে যাওয়া হবে না, জানি। মুক্তি ও স্বাধীন শব্দদ্বয় ভালোবেসে বুক ভরে শ্বাস নিতে চাই তবু। হায়রে, বায়ুস্তরেও কর্পোরেট তেলেসমাতি, দূষণের দমকায় দূষিত অক্সিজেন।
অপার হয়ে বসে থাকা স্মৃতিকালের ঘাট কেবল সাক্ষী, উৎসবদিন শেষে এও আরেক বিসর্জন বিলাস। প্রকাশ্যে ন্যাংটা চাকু নাচায় ঠোটরাঙা মৌলভী, বলিকাষ্ঠের পুরোহিত, ব্যবসায়ী যাজক আর তার সাথে নির্বাণলিপি পুড়ে আজ ছাই; স্বার্থতন্ত্রমন্ত্রের গ্যাড়াকলে ওষ্ঠাগত ইতিবাচক শব্দসমুচয়। তবু জেনো— বিশ্বাসের আরেক নাম রাতকানা। পরকালও তবে স্বৈরতন্ত্রের কল্পিত আমল। আহা গণতন্ত্র, চশমায় ঢাকা চোখের ভাষার মতন।
তন্ত্রমন্ত্রের ছোঁয়াচে বায়ুকে তাই বলি— দূর হ শালা, ঝরাপাতা পাঠ শেষ হলেই আসবে সকল দায়মুক্তির ঋতু, আরাধ্য শান্তির স্বাধীনতা।

০৭ ডিসেম্বর ২০১১

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

25 Responses to তন্ত্রমন্ত্রের তেলেসমাতি

  1. যে পড়বে সেই ঝলসে যাবে , ১ম জন আমি ! জ্বলন্ত স্যালুট

    imrul.kaes@ovi.com'

    শৈবাল
    ডিসেম্বর 7, 2011 at 10:12 পূর্বাহ্ন

  2. আরও একটা বিশাল স্যালুট………। চমৎকার প্রকাশ।

    quazih@yahoo.com'

    কাজী হাসান
    ডিসেম্বর 8, 2011 at 2:51 পূর্বাহ্ন

  3. এত অল্প কথায় এত বিশাল প্রকাশ!!!

    khalid2008@gmail.com'

    শাহেন শাহ
    ডিসেম্বর 8, 2011 at 2:54 পূর্বাহ্ন

    • জাঁহাপনা, এছাড়া আর কোনো গত্যন্তর ছিল না। গোস্তাকী মাফ হুজুর, এটুকুই বলতে পেরেছি। :D

      রাজন্য রুহানি
      ডিসেম্বর 8, 2011 at 7:32 পূর্বাহ্ন

  4. ^:)^

    khalid2008@gmail.com'

    শাহেন শাহ
    ডিসেম্বর 8, 2011 at 2:55 পূর্বাহ্ন

  5. ঠিক বলেছেন দাদা । আমি ও জলসে গেলাম । মাইরি ।

    touhidullah82@gmail.com'

    তৌহিদ উল্লাহ শাকিল
    ডিসেম্বর 8, 2011 at 3:26 পূর্বাহ্ন

  6. সাত আট বার পড়েছি খুব মনোযোগ দিয়ে। কারন আপনার কবিতায় শব্দরা একটু আলাদা। আমার মনে হলো কবিতায় কিছু লাইন থাকে যা শুধুই কাব্যিক ভাব আনার জন্য। এই কবিতার সব লাইন গুরুত্বপূর্ণ।
    উল্লেখিত কিছু লাইন,

    ভেড়ার রাষ্ট্রে ভেড়াবনে না যায় যদি আমজনতা— কী আর থাকে মর্যাদা, বলো?

    সুবোধ সাধুর গেরুয়া ওড়ে গেলে আমি-তুমির শরীর সব একরঙা পাখির খাঁচা

    আহা মুক্তি, আহা সুস্বাদু স্বাধীনতা; শিকলে শিকল জোড়া দিয়ে দৈর্ঘ্য বেড়েছে শুধু, কেন্দ্রে তো বাঁধা আছেই প্রান্ত— পায়ে পায়ে শিকল তদুপরি বাহাদুর খেতাব দিয়েছ বটে, বাহাদুরির যন্ত্রমন্ত্র যত পরিবারতান্ত্রিক ঈশ্বরীর কাছে জব্দ।

    তবু জেনো— বিশ্বাসের আরেক নাম রাতকানা।

    পরকালও তবে স্বৈরতন্ত্রের কল্পিত আমল।

    :-D । এই লাইনটা আপনার স্বকীয়তা ।
    পুরো কবিতায় খুব এনার্জি দেখতে পেলাম।যেটা দরকার এই ধরনের কবিতায়। আত্মিক শক্তিতে বলিয়ান এই বলিষ্ঠ কবিতার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। এই সুরে দেশ গঠনের আহবান থাকলে আরো ভালো হত।
    :yes: :yes: :yes: :yes:

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    ডিসেম্বর 9, 2011 at 4:53 পূর্বাহ্ন

  7. তন্ত্রমন্ত্রের ছোঁয়াচে বায়ুকে তাই বলি— দূর হ শালা, ঝরাপাতা পাঠ শেষ হলেই আসবে সকল দায়মুক্তির ঋতু, আরাধ্য শান্তির স্বাধীনতা।

    – অপূর্ব!

    shamanshattik@yahoo.com'

    শামান সাত্ত্বিক
    ডিসেম্বর 10, 2011 at 6:47 অপরাহ্ন

  8. দুর্দান্ত!

    kbr007@gmail.com'

    কবির য়াহমদ
    ডিসেম্বর 11, 2011 at 9:08 অপরাহ্ন

    • কৃতজ্ঞতা।
      আপনাকে এখানে দেখে কী যে খুশি হয়েছি! নিয়মিত পাবার আশা রাখছি, অনুরোধটুকু ভেবে দেখবেন।
      শুভ কামনা।

      রাজন্য রুহানি
      ডিসেম্বর 24, 2011 at 9:21 পূর্বাহ্ন

  9. অসাধারণ ভাববোধে জড়িত, আপন মহিমায় সমুজ্জল চিরন্তন শিখা। এমন প্রদীপ্ত শিখায় নিজেকে জ্বালিত গর্ব করতে কে না চায়?
    অস্বাধারণ ভাইয়া। :rose: :rose: :rose:

মন্তব্য করুন