বসন্ত শেষের বেলায়

Filed under: গান,পদ্য |

ফুল তুলে মালা গেঁথে যে ভুল করেছি
ভুলটা ঘুচাতেই আবার মালা গেঁথেছি;
বসন্ত শেষের বেলায়
সখি, প্রাণেরই খেলায়।
দোলাচলে পড়ে নিজেরে হারাইছি।

আকাশটা জানে না তো বৃষ্টি কারে কয়,
মাটির বুকেতে বৃষ্টির স্রোতধারা বয়।
সেই ধারাতে আঁখিজল মিশে যায় যদি
দোষ কি বলো তাতে হয়ে গেলে নদী;
জলের নদী ঢেউ উথাল,
হাল নাই নাওয়ের, নাইও পাল।
তবু মায়ার টানে মোহনায় ছুটেছি।

ঢেউ-দোলায় ডুবে ভাসে গাঁথা সেই মালা,
জলেতে আগুন লাগায় কার অবহেলা।
আকাশটা মুচকি হেসে মর্মকথা কয়—
জানো না পৃথিবীতে কেউ তো কারো নয়।
চারপাশে তাই হাহাকার,
আমি এখন নাই আমার।
তবে কি এতদিন ভুল করেই চলেছি।

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

46 Responses to বসন্ত শেষের বেলায়

  1. গান তো, সুর করা গেলে আবেদনটা স্পষ্ট প্রাণে ধরা দিতো।

  2. আকাশটা জানে না তো বৃষ্টি কারে কয়,
    মাটির বুকেতে বৃষ্টির স্রোতধারা বয়।
    সেই ধারাতে আঁখিজল মিশে যায় যদি
    দোষ কি বলো তাতে হয়ে গেলে নদী;

    বেশ চমৎকার।
    এমনি করে পায়ে পায়ে এগিয়ে যাক যত ভাবনা…………………………।

    • মন চাইলো, লিখে ফেললাম। অনেকটা আবেগ তাড়িত হয়ে, আপনার গানের সুর আর কথামালা ভালোবেসে! :D

      চমৎকার বলে তো দিলেন মায়া বাড়াইয়া, এখন দেখি গানই লিখতে হইবো, গানের মতো কইরা। 8->

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 2, 2011 at 8:32 পূর্বাহ্ন

    • নীল নক্ষত্র ভাই, ওই চারটে লাইন আমারও পছন্দ হয়েছে। বেশ ভাব আছে, তাই না?

      bonhishikha2r@yahoo.com'

      বহ্নিশিখা
      মার্চ 3, 2011 at 7:32 পূর্বাহ্ন

  3. ভুল করেছো ভুল
    তাই পেলে না ফুল
    ছিড়বো মাথার চুল
    পারলে কেন কুল
    ______________——

    খুব সুন্দর

    roy.sokal@yahoo.com'

    অরুদ্ধ সকাল
    মার্চ 2, 2011 at 1:01 অপরাহ্ন

  4. সুন্দরম

  5. আমি সাধারণত কোন পোস্টে লাইক দেই না। শুধু আপনার ঘরে আসলেই এই কাজটি না করে পারি না….. অনেক পর আপনার নতুন কবিতা আসল!

    রিপন কুমার দে
    মার্চ 2, 2011 at 3:54 অপরাহ্ন

    • :rose:
      যত ভালোবাসা
      ছুটে আসে
      তত আলো-আশা
      ঠোঁটে হাসে
      দেখে পছন্দের মায়া;
      মাথায় নিলেম সে-ছায়া…
      >:D<

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 3, 2011 at 6:08 পূর্বাহ্ন

  6. গান হলে অনেক বড় হয়ে যায়, পদ্য হলে ঠিক আছে। আসলে কোনটি, গান না পদ্য? সুর করা?

    bonhishikha2r@yahoo.com'

    বহ্নিশিখা
    মার্চ 3, 2011 at 7:28 পূর্বাহ্ন

    • আমি ভাবি দুটোই; সুর করা হলে হবে গান, নইলে আসল রূপে পদ্য। সুর করা হয় নি এখনও।
      …………………
      সবকিছু ভালো তো? পোস্টাইবেন কবে?

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 3, 2011 at 7:41 পূর্বাহ্ন

      • না, ভালো নেই সবকিছু। দৌড়ের উপ্রে আছিরে ভাই। একটু থিতু হয়ে নিই, পেস্টাইবো তখন।

        bonhishikha2r@yahoo.com'

        বহ্নিশিখা
        মার্চ 3, 2011 at 7:52 পূর্বাহ্ন

  7. নতুন কইরা প্রেমে পড়লেন নাকি? :D

    নিজেরে হারাইছি হতে পারতো।

    আথবা

    নিজেকে ভুলেছি।

  8. প্রেম করিলেও দায়
    না করিলেও প্রাণ যায়
    কী করি উপায়!
    :D
    নিজেরে হারাইছি-ই হলো। কৃতজ্ঞতা।

    রাজন্য রুহানি
    মার্চ 4, 2011 at 4:24 অপরাহ্ন

  9. ঢেউ-দোলায় ডুবে ভাসে গাঁথা সেই মালা,
    জলেতে আগুন লাগায় কার অবহেলা।
    আকাশটা মুচকি হেসে মর্মকথা কয়—
    জানো না পৃথিবীতে কেউ তো কারো নয়।

    খাবি খাইলাম! 8->
    সুরহীন হয়েও সুরেলা ভীষণ।
    সুরে সুরেই গাইল মন। :rose:

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    মার্চ 6, 2011 at 3:45 পূর্বাহ্ন

    • আকাশটা জানে না তো বৃষ্টি কারে কয়,
      মাটির বুকেতে বৃষ্টির স্রোতধারা বয়।
      সেই ধারাতে আঁখিজল মিশে যায় যদি
      দোষ কি বলো তাতে হয়ে গেলে নদী;

      অভিধানে খাবি খাওয়া অর্থ হলো— ১. বাধাপ্রাপ্ত নিঃশ্বাস টানার জন্য প্রাণাপণ চেষ্টায় ধড়ফড় করা (প্রাণটা খাবি খাগ্ বোয়াল মাছের মতন— অঠা)। ২. (আল.) মুক্তির জন্য প্রাণান্তকর চেষ্টায় ছটফট করা (বিক্রয়ের জন্য খাবি খাইতেছে—বচ)। ৩. হাঁসফাঁস করা (সেই সব সামলাতে গিয়েই প্রাণটা খাবি খায়… সৈমু)।
      বুঝলাম না কোন ধরনের খাবি খাইলেন। :D

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 6, 2011 at 3:25 অপরাহ্ন

      • অভিধানের অর্থে জানতাম

        বাধাপ্রাপ্ত নিঃশ্বাস টানার জন্য প্রাণাপণ চেষ্টায় ধড়ফড় করা

        কিন্তু ভাবের অর্থে বলেছি তীব্র ভাললাগায় অনুভুতিতে নিঃশ্বাস বাধাপ্রাপ্ত এবং ধড়ফড় করা মানে খাবি খাওয়া। :D

        আকাশটা জানে না তো বৃষ্টি কারে কয়,
        মাটির বুকেতে বৃষ্টির স্রোতধারা বয়।
        সেই ধারাতে আঁখিজল মিশে যায় যদি
        দোষ কি বলো তাতে হয়ে গেলে নদী;

        এই লাইনগুলোতেও খাবি খাইলাম।
        গান করে শুনালে আমরা খুশিই হব।

        rabeyarobbani@yahoo.com'

        রাবেয়া রব্বানি
        মার্চ 7, 2011 at 9:21 পূর্বাহ্ন

        • সুরকার নাই
          কিভাবে হায়
          গান হবে এ পদ্যখানি?
          তারচে বরং
          মেখে সাত রং
          মনেতে রংধনু আনি!

          রাজন্য রুহানি
          মার্চ 7, 2011 at 3:49 অপরাহ্ন

  10. আবার এক্সক্লুসিভ! এটা নিয়ে ক’বার হলো?
    অভিনন্দন কবি। :rose:

    bonhishikha2r@yahoo.com'

    বহ্নিশিখা
    মার্চ 6, 2011 at 4:01 পূর্বাহ্ন

    • মনটা ভালো নেই; এক্সক্লুসিভ-এর আনন্দযজ্ঞে যোগ দিয়েও মনটা ছুটে গেছে কোথাও— জানি না! দু বার মনে হয়। :bz

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 6, 2011 at 3:32 অপরাহ্ন

  11. ওহ এক্সক্লুসিভের জন্য অভিনন্দন দেয়া হয় নি তো!
    অভিনন্দন কবি। :rose: :rose: :rose: :rose: :rose:

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    মার্চ 6, 2011 at 4:32 পূর্বাহ্ন

    • পেলাম অভিনন্দন
      হঠাৎ হৃদ-স্পন্দন
      উথলি উঠিল ভার্চুয়াল বানে।
      উত্তরে জানালাম
      কৃতজ্ঞতার কালাম…
      আর কেউ নয়, শুধু অন্তর্যামী জানে।
      …………………………
      :rose: :rose: :rose: :rose: :rose:
      :rose: :rose: :rose: :rose: :rose:

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 6, 2011 at 3:47 অপরাহ্ন

  12. এক্সক্লুসিভ লেখার জন্যে কবিকে এক্সক্লুসিভ শুভেচ্ছা। :rose: ছন্দোবদ্ধ পদ্যগান আমার কাছে অতীত প্যাটার্ণ মনে হয়। এটির চেয়ে আপনার অনেক ভালো কবিতাই আছে যা এক্সক্লুসিভ হবার যোগ্যতা রেখেছিল।
    পদ্যের জন্যে… কি লিখবো ভেবে ভেবে কিছুই পেলাম না। বুঝে নিয়েন।

    sumhani@gmail.com'

    সুমাইয়া হানি
    মার্চ 6, 2011 at 7:16 পূর্বাহ্ন

  13. ঢেউ-দোলায় ডুবে ভাসে গাঁথা সেই মালা,

    আরএকটু সমসায়ীক ভাষা প্রয়োজন

    • যখন লিখেছি তখন কথার সাযুজ্য আর ছন্দাঙ্কের দোলাচলে পড়ে এই লাইনটাই যে এলো, আর কিছু ধরল না মাথায়—- আমার কী দোষ, বলেন? :D

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 6, 2011 at 3:54 অপরাহ্ন

  14. এক্সক্লুসিভ বাংলায় কি হবে !
    … কবিকে নিরঞ্জন শুভেচ্ছা , ভালো থাকুন , শান্তিতে থাকুন । শান্তি !

    imrul.kaes@ovi.com'

    শৈবাল
    মার্চ 7, 2011 at 10:01 পূর্বাহ্ন

    • অনেকদিন পর দেখলাম! সব খবর ভালো তো কবি?

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 7, 2011 at 3:50 অপরাহ্ন

      • সব খবর ভালো কিনা জানি না তবে সব মিলিয়ে ভালো আছি বেশ আছি !

        imrul.kaes@ovi.com'

        শৈবাল
        মার্চ 7, 2011 at 4:00 অপরাহ্ন

        • অনেকদিন বাবুই পাখির বাসা বুনেছি মনে মনে। রাত্রির রং মেখে ‍বিনিদ্র চাঁদের হাতছানি দেখেছি নদীর জলে একা একা। গাঙশালিখের ডানায় হঠাৎ উড়ে যাবার সাধ জাগে, স্মৃতি হতে দূর অন্য কোনোখানে। যাওয়া হয় না আর। মনের বাড়িতে বসে প্রবোধের মাত্রাটাকে বাড়াই, নাড়াই যত স্থবির অবেলা, দিগন্তের লাল আভাটুকু আলতা হয়ে যায়। ঘোর কেটে যায়। আবার ঘোরাক্রান্ত দিনের নামতায় শৈশব-যৈবন ভুলে মাতি দোলাচলে, চলাচল কোলাহলে; যাপনের তাদিগে ফের উড়ে যায় পাখি হায় জানা না-জানা বিচিত্র বেভুল সময়ের যাত্রায়। তবু প্রাণখুলে বলতে পারি না সব মিলিয়ে ভালো আছি, বেশ আছি…।
          ……………………..
          ভালো আছেন জেনে ভালো লাগলো।
          ……………………..
          শান্তি।

          রাজন্য রুহানি
          মার্চ 7, 2011 at 4:26 অপরাহ্ন

          • কবি যারা এতো স্বপ্ন দেখতে জানে তার ভালোও থাকতে জানে , মাঝি যখন গায় তখন দুঃখের গানই গায় কিন্তু এইটুকো প্রকাশেই তার আনন্দ । পাখির ডানায় করে উড়ে যাওয়ার স্বপ্ন আমারও অনেক দিনের , খুব উঁচুতে শহর সবচেয়ে উঁচু টাওয়ারটাও যেখানে নখে খুঁটে ফেলার মতো মনে হয় সেই উঁচুতে , মাছরাঙার রঙ মেশানো পাখায় যেখানে নাগরিক সিল্‌ মারা নেই ! কলকবজার ঝিঁ ধরা শব্দ নেই মথা ধরা নেই ফুসফুসে কালি নেই যেখানে হৃদপৃণ্ডে সাদা মেঘ রঙিন প্রজাপতি ফড়িং বাসা করবে । কিন্তু যখন দেখি পায়ে শেঁকড় জড়িয়ে আছে জন্ম থেকে তখন খসেখসে চলি এই সমতটেই সবার মতো সামাজিক সম্ভাষণে , জানি হয়তো একদিন আচমকা ঝড়ে এই জন্মচিহ্নের শেঁকড়গুলো ছিঁড়ে যাবে সেদিন হয়তো একজোড়া সাদা ডানা পাবো বেশ হবে , কিন্তু তারপরেই মনে হয় এই মাটিও যে কম প্রিয় নয় তাই ততদিন পর্যন্ত ভালো আছি বেশ আছি ।

            আমার বাবা ভালো থাকার রহস্য শিখিয়েছেন , কেউ যখন জিগ্যেস করবে কেমন আছো বলবে বেশ আছি সেই কেউ টা হয় তো তুমি নিজেই হতে পারো অথবা অন্য কোন লোক , বেশ আছি অন্তত সেই সময়ের জন্যে হলেও বেশ থাকতে পারবে ।

            থাকুন না ! আরেকটু ভালো থাকুন নিজে নিজে ,বেশ থাকুন ।

            imrul.kaes@ovi.com'

            শৈবাল
            মার্চ 7, 2011 at 5:25 অপরাহ্ন

            • শুধু স্বপ্ন বুনে যাই
              নিজেরে হারাই,
              আপন মনে গেয়ে গান
              খুঁজে ফিরি প্রাণের প্রাণ
              অসীম শূন্যতায়…
              তবু স্বপ্ন দেখে যাই।

              ঘোর লাগে যখন
              চন্দ্রগ্রহণের মতন
              জগতজোড়া বাসনায়;
              মেতে রৌরবে
              বিষ ঢালি এই গৌরবে
              পান্থজনের আস্তানায়…
              তবু স্বপ্ন দেখে যাই
              শুধু গান গেয়ে যাই।

              (আপনার চারু-মন্তব্যের তলানিতে যে রত্নের আয়োজন, মনে হয় আমি তাতে অনাহুত আগন্তুক। কী করি— ভেবে পাচ্ছি না যখন, মনের ভিতর হঠাৎ কে যেন গুনগুনিয়ে উঠল লাইনগুলি তখন; লিখে ফেললাম। আপনার পদতলেই সেইটুকু উৎসর্গ করলাম।)

              রাজন্য রুহানি
              মার্চ 8, 2011 at 4:22 পূর্বাহ্ন

              • ” কেও কাওকে ছাড়া অসহায় হয় না । তবে মানুষও মানুষকে ভর করে একাকিত্ব দূর করে শেয়ার করে ইত্যাদি । এটা যে কেউ হতে পারে চলার পথে ক্ষণস্থায়ী বন্ধু কিংবা পথিক । মানুষই তো মানুষের প্রয়োজনে ”

                …কথাগুলো কত সহজ ;তাই না ! কিন্তু ভুলতে পারি না , আমি যখন মনখারাপের খোলসবন্দী ছিলাম তখন প্রিয় একজন মানুষ বলেছিল কথাগুলো অনেকটা অভিমানে করেই ।
                আপনাকেও শুনাতে ইচ্ছে হলো ।

                আপনি আমার জন্যে যে কয়েক লাইন লিখেছেন বুকে তুলে নিয়েছি , আপনাকে আমার পুরনো খসড়া থেকে কিছু শোনাতে ইচ্ছে হচ্ছে

                “মায়ায় ছলে ঋতুর ছয়ে
                আটকে আছি কেমন লয়ে
                বছর ঘুরে ধুলো জমে
                থেমে থেমে ক্রমে ক্রমে
                হৃদয় ক্ষতে আঙুল দিতে
                এক তারাটি কেঁদে ওঠে
                সুখের কথা কইতে গেলে
                দুঃখের শৈল এমনে গলে … ”

                ভালো থাকবেন কবি । একটু ব্যস্ত হতে হবে তাই আপাতত বিদায় । শুভ কামনা । শান্তি !

                imrul.kaes@ovi.com'

                শৈবাল
                মার্চ 8, 2011 at 5:21 পূর্বাহ্ন

                • আশা জাগানিয়া কথা
                  ভাঙে নীরবতা
                  কী টানে হেসে;
                  জীবন-ঘাস আর পৃথিবীরে ভালোবেসে।
                  তাই রাতকে পাশে রেখে
                  ইচ্ছে হয় রোদের পরশ মেখে
                  শুকাতে দেই একদিন সমস্ত স্যাঁতস্যাঁতে ব্যথা
                  শুনি যদি তবু শান্তির বারতা;
                  তবু ভালো
                  এই ক্ষণে এসে লীন হয়েছে তোমার আলো
                  আমাতে;
                  যে চলতে চায়, বলো, কে পারে তারে থামাতে?

                  (তাৎক্ষণিক লেখা এই প্রলাপপদ্যের দীপালি
                  কবি, তাও দিলাম অঞ্জলি )

                  রাজন্য রুহানি
                  মার্চ 8, 2011 at 6:04 পূর্বাহ্ন

                  • চমত্‍কার মন্তব্য ঘর হয়ে উঠেছে দুই প্রিয় কবির কথোপকথনে ।কবিতাগুলো কি মূল কবিতার বোনাস !

                    rabeyarobbani@yahoo.com'

                    রাবেয়া রব্বানি
                    মার্চ 8, 2011 at 6:44 পূর্বাহ্ন

                    • ভাবি যা, তার উল্টো হয়
                      উল্টো ভাবলে তবে সিধে হবার কথা

                      কিন্তু উল্টোরা আর উল্টে না
                      তারা বরাবর সিধেপন্থি…

                      কবিরাই বোধহয় সিধেপথ রেখে
                      উল্টে উল্টে যায় :D

                      রাজন্য রুহানি
                      মার্চ 8, 2011 at 7:08 পূর্বাহ্ন

                    • এই বিষাদ-ঘোর
                      এই অবেলা
                      এই অশান্ত ভোর
                      এই যে হেলা
                      নিয়তির অসুর হয়ে খেলা করে দিনরাত;
                      ব্যথার সে-পীড়ন
                      অষ্টপ্রহর
                      নষ্ট করে মন
                      আর আশার বর
                      নিতে গিয়ে কোন বেভুলে আনি অপঘাত!

                      রাজন্য রুহানি
                      মার্চ 8, 2011 at 7:16 পূর্বাহ্ন

  15. ভাবি যা, তার উল্টো হয়
    উল্টো ভাবলে তবে সিধে হবার কথা

    কিন্তু উল্টোরা আর উল্টে না
    তারা বরাবর সিধেপন্থি…

    কবিরাই বোধহয় সিধেপথ রেখে
    উল্টে উল্টে যায়

    মারহাবা , লা-জবাব, বহত খুব।

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    মার্চ 8, 2011 at 7:46 পূর্বাহ্ন

    • ঘর রেখে ক্যান বাইরে?
      ঘরের শোভা নাই রে…। :-SS

      রাজন্য রুহানি
      মার্চ 8, 2011 at 8:02 পূর্বাহ্ন

      • খেয়াল করলেই দেখতে পাবেন ঘরের চাবি নাই যে!
        :D
        আপনার উক্ত কমেন্টসের নিচে জবাব দিন অপশন টা নাই। কেন? ;))
        তাই মনে লইয়া ইট্টু ব্যাথা
        বাইর অইয়া কইলাম কথা।

        rabeyarobbani@yahoo.com'

        রাবেয়া রব্বানি
        মার্চ 8, 2011 at 8:33 পূর্বাহ্ন

  16. কমেন্ট আর কাব্যের কাছে ভাললাগা রেখে গেলাম। :rose: %%- ~O)

    বৈশাখী
    মার্চ 8, 2011 at 8:09 পূর্বাহ্ন

মন্তব্য করুন