মামুন ম. আজিজ

রাজপথে টুকরো কাচ যেন কাচের সমুদ্র

Decrease Font Size Increase Font Size Text Size Print This Page

স্বাভাবিক কোন কিছুই স্বাভাবিক নয়, তাই
চোখ ফেরাই অস্বাভাবিক যা কিছু নিকটে পাশে,
একদা এখানে একটা হরিণ শাবক ছিল,  নিরব শান্তির বিমূর্ত প্রতীক;
তার চোখে জল দেখব বলে তাকাই, অথচ হরিণ শাবক নেই;
ঠিক সামনে খানিক আগে একটা বাস পোড়ানো হয়েছে
মোবিল পুড়ছে, গন্ধ গ্রহনে আপত্তি করে লাভ নেই,
অনেকের নাকেই হয়তো এটি সুঘ্রান। তাদের নাকও বটে!
মোবিল নাকি বহুল ব্যবহুত এক উত্তম ভেজাল পন্য
গরম গরম খাবার  দাবার ভাজা হয় হোটেলে মোবিলে,
কালো মবিল তুই পোড়. পুড়তেই থাক, কিন্তু তোর কি দোষ?
কাচের সমুদ্র ,এক কিলো পথে বয়ে গেছে ঢেউ, কাচের তরঙ্গ।
লোকাল বাসে ভীষণ গরম লাগে, মুড়ি ঠাসা হয়ে গায়ে গাযে গুতোগুতি
বাতাস তাই  বিমাতা রূপে যেন অসহায় প্যাসেঞ্জারগণের জন্য…
কাচ ছাড়া জানালায় বাতাসের বেয়াড়া খেলা এবং পিছুটান বিফলে যাবে।
তাই ধন্যবাদ যারা নির্বিচারে বাসের কাচ ভাঙে,  কাচের সমুদ্রে রোদ খেলা করে
পথের ধারে মাছের মূর্তি গুলো কাঁদে, তারাও মৃত আর মৃত কাচের সমুদ্র পথ।
তবুও কাঁেদে না সতেজ প্রাণ মানুষ, মানুষ জানে কেবল কাঁদাতে,
কখনও হারিযে যায় রাজ পথে বিমূর্ত শান্তি , হয়তো ক্লান্তি হয়েও দৃষ্টি
কই মাছের প্রাণ হযে টিকে থাকে অনেকক্ষণ, কিন্তু এতো স্বাভাবিক নয়;
খুব সম্ভবত যে স্বাভাবিক চিনতাম তা হলো বাসের জানালায় রঙিন কাঁচ
আর পিচ ঢালা কালো পথে কিছু ধুলোর সাথে সূর্যের ছায়া।
কিন্তু সব মায়া। স্বাভাবিক কোন দর্শনই স্বাভাবিক নয়, উদাহরণ যেন
মনে বিদ্ধ কাচের টুকরো;  কিন্তু কি অস্বাভাবিক !- কোন রক্ত ঝরে
না মনে, মন যেন সব ত্রিকোনা লোহার পাতে মোড়া।

৭/৩/২০১১

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।


8 Responses to রাজপথে টুকরো কাচ যেন কাচের সমুদ্র

  1. juliansiddiqi@gmail.com'
    জুলিয়ান সিদ্দিকী মার্চ 6, 2011 at 9:49 অপরাহ্ন

    তবুও কাঁেদে না সতেজ প্রাণ মানুষ, মানুষ জানে কেবল কাঁদাতে,

    কাব্যভাব মনে থাক জেগে। :rose:

  2. rabeyarobbani@yahoo.com'
    রাবেয়া রব্বানি মার্চ 7, 2011 at 9:33 পূর্বাহ্ন

    হুম।চেনাজানা এই সমস্যাগুলোর বিষন্ন কাব্যিক উপস্থাপনটা ভাল লেগেছে আর ভাবিয়েছে।শুভ কামনা।
    তবুও কাঁেদে না সতেজ প্রাণ মানুষ, মানুষ জানে কেবল কাঁদাতে,
    এই লাইনটা বেশ! :rose:

  3. imrul.kaes@ovi.com'
    শৈবাল মার্চ 7, 2011 at 10:18 পূর্বাহ্ন

    খুব পরিচিত চিত্রকল্প । অভ্যস্থ হচ্ছি প্রতিনিয়ত এই সব দৃশ্যে কল্পে এখন আপনার মতো আমাদের সব শহুরেদের একই অবস্থা পোড়া তেলে শ্বাস টানি নিঃশ্বাস ছাড়ি বেঁচে আছি কাঁচের টুকরোয় ভাঙা জল দেখি , হিপনোটাইজ বুদবুদে ভাসি ডুবে যাই প্রতিদিন ভেসে যাই , মেকি রোদের অঞ্জলী ভালোবাসায় । এই নিয়ে তো ভালো আছি বেশ আছি । প্রিয় জুলিয়ান সিদ্দিকীর মতো আমারও ভাবে পেল মাফ করবেন পুরনো খসড়া থেকে কয়েক লাইন

    …রোদ তেমনি তুলটে , একই রকম তির্যক

    দুই তিন চার পাঁচ … তলার গ্লাসে মাছ হয়ে

    পুরোন গানের ছায়া , তাপ পাই দহন নেই

    সোনালী মাছের কায়া , শহর হতে শহর

    আরো একটা সকাল , গত কালের মতো এলো

    আমিও গত কালের , কিংবা গত যুগের মতো

    ভালো আছি বেশ আছি ,…ও হুতুম তুমি ভালো তো ।

  4. mamunma@gmail.com'
    মামুন ম. আজিজ মার্চ 8, 2011 at 3:12 পূর্বাহ্ন

    আমিও গত কালের , কিংবা গত যুগের মতো

    ভালো আছি বেশ আছি ,…ও হুতুম তুমি ভালো তো ।

    আসলেএকটা ভালো থাকার অভিনয় করে চলেছি আমরা। এটাই জীবন খেলা
    এটাই নিয়তি, যদি নিয়তি নিয়ত আসে যায় কাছে দূরে, না হলে সবই মায়া।

    • imrul.kaes@ovi.com'
      শৈবাল মার্চ 8, 2011 at 4:00 পূর্বাহ্ন

      কী জানি হবে হয়তো , মায়ায় সম্মোহিত শখের পুতুল সেজে নেচে যাই সবাই । তারপরেও তো ভালোবাসার মতো কিছু একটা থাকে যেখান থেকে মায়াটুকো টের পাই , ফিরে আসা চিঠিতেও মায়া জমতে থাকে কারো নিষ্ঠুরতাও তো ভালো লাগে … দর্শক যা দেখে তাকে না হয় অভিনয় বলি , যেটুকো প্রকাশ করা যায় না সেই বোধটুকু ভালোবাসা নিয়ে যে ভালো লাগা তাতো অভিনয় নয় ।

  5. রাজন্য রুহানি মার্চ 8, 2011 at 6:29 পূর্বাহ্ন

    নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনাবলিও কাব্যের অংশ হতে পারে, দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত শব্দও গাঁথুনির নৈপুণ্যে ভাবের বিলাস হতে পারে; কবিতাটি পড়ে আমার তা-ই মনে হলো।
    :rose:

You must be logged in to post a comment Login