অরুদ্ধ সকাল

মুক্তগদ্য: ধূপমিশালির ঘাটে

Decrease Font Size Increase Font Size Text Size Print This Page

___________________________________________________________

তখন ছিলো সন্ধ্যেরঙের পথ। ধূপমিশালি ঘাটে দাড়িয়ে তুমি বলেছিলে, তোমার একটা প্রতিচ্ছবি দেবে আমায়!
সে কথা কচি পাতা হয়ে ঝুলে রইলো টবের গায়,ধূপমিশালি ঘাঠ হলো নীল;
আমি চোখপাতায় হাত ছোয়াই -বলি কেন রে এত তেষ্টা?
চোখ শুধু বোবা হয়ে যায়!
সামনে দাঁড়ালে আমি জমে যাই মোমের ফোটার মতো, জমে যাই বটের আঠার মতো! তুমি তাই বোধহয় সামনেই আসো না?

ভরদুপুরে তোমার অবয়ব গায়ে মেখে সুখদাসী বললো এসো,
একঘরা জল দেবে ভাই , আজি তেষ্টা মেটাই
জল দেব কি! নদী যে চোখে; মহাসাগর রেখেছি মনঘড়ির পিঠে!
ছবি হয়ে আছে, কত নেবে নাও!
-নাহ্ শুধু একঘরা দাও?
কলসি উপুর করে দিলাম সব পানিটুকু, তাতে তেষ্টা মিটুক

সুখদাসি সুখ বিছায়ে পাল্টে দিলো আমার দুখু ঘরখানা। দু’দন্ড সে রইলো তারপর পায়ের ছাপ ফেলে, দিলো ঢ্যাঙা সাঁকো পাড়ি

বিকেলে চরণ ময়রা মাথায় নিয়ে পালক পাগড়ী, বললো বাবু আগুন আছে ধোয়া না নিলে আর চলছে না।
-আগুন দেব কি, এই দেখো মহাকুন্ড রয়েছে পাজরের পরতে পরতে,
রয়েছে বাক্য সাগরের সঞ্চিত ভূমিতে
কত আগুন লাগবে তোমার?
-না শুধু এক ঝলক দাও
-চোখপাতার বারুদ খসে দিলাম তাকে, ‘ধোয়া উঠুক’

চরণ ময়রা আমার সমস্ত ঘর ভরিয়ে দিলো আচ্ছন্ন মেঘে। দু-দন্ড রইলো তারপর আগুন নিয়ে হাটল উত্তরের পথে।

ছাইরঙা সন্ধ্যেয় নিমকাঞ্চনী হাতে প্রদীপ নিয়ে দাড়িয়ে,
-দুটো সল্তে হবে আলো জ্বালবো?
দুটো বলছো কি? বুকের ভেতর নিভে যাওয়া কত্তো সল্তে পড়ে রয়েছে, রয়েচে কতো দুমড়ানো-মুচড়ানো রঙ্গীন সুতোর সল্তে
ক’খানা লাগবে নিতে পারো?
-‘না শুধু একখানা দাও প্রদীপ জ্বালবো’
কত দিনের পড়ে থাকা একটা রুপোর প্রদীপ ছিলো ঘরে, বাক্সভর্তি মিহি সুতোর
আছে তাতে; দিলাম তাকে-আলো জ্বলুক!

নিমকাঞ্চনী আধার নিয়ে বুকে আলো দিলো দুয়ারের আধার খোপে, ঘর যেন চুমকি হয়ে গেল। দু’দন্ড রইলো তারপর রুপোর নুপুর শব্দ কানে ঠেকিয়ে দূর্বা মাড়ালো।

কয়লা কালোরাত ছমছম হঠাৎ! রাতকুমারি চোখে নিয়ে ঘুম
-একটু নিরবতা দেবে ঘুমুবো
কতকাল চোখ বুঝিনি পিতকালো আধারের ভয়ে, নিরবতা আছে মাথার জমানো স্মৃতিতে। নিরব স্পন্দন সদা বাজে টিকটিক করে টিকটিকির মতো
‘কতখানি লাগবে নিতে পারো’?
‘না শুধু কিছুটা দাও’
যেটুকু নীরবতা জমিয়ে রেখেছিলাম ক্যালেন্ডারের গায়ে তা থেকে দিলেম কিছুটা তাকে; ‘তবুও ঘুম আসুক’
রাতকুমারি নিরবতা চোখের পালকে বুনে দিলো রাজ্যের ঘুম; নিদ্রা দেবীর ছলনায় কাত হলো পাড় মাতাল টাও। দু’দন্ড রইলো তারপর আচ্ছন্নতা দিয়ে মিলিয়ে গেল।

ফর্সা হয়ে আসছে ধোয়াটে আকাশ। রাত ততক্ষণে নাইতে গেছে ভোরের ধলাপাড়া গায়-যেখানে কূলবধুরা সব সকালে কাপর শুকায়। হঠাৎ দেখি তুমি ঠিক তার পাশে ছায়া হয়ে আছো শতবছরি বটান্তের শাখায়!

__________________________________________________________

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।


22 Responses to মুক্তগদ্য: ধূপমিশালির ঘাটে

  1. obibachok@hotmail.com'
    অবিবেচক দেবনাথ জুন 7, 2011 at 5:09 পূর্বাহ্ন

    :rose: :rose: :-bd :rose: :rose:

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 7, 2011 at 4:44 অপরাহ্ন

      ছিলো রাতের ছায়া তাতে ছিলো তেতো মায়া
      আমি সে মায়া কাটাতেই ছিলাম নীল হয়ে
      কিন্তু তা আর কতক্ষন থাকবো ……………
      ধন্যবাদ দাদা

  2. mannan200125@hotmail.com'
    চারুমান্নান জুন 7, 2011 at 9:12 পূর্বাহ্ন

    :-bd :rose: %%-

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 7, 2011 at 5:03 অপরাহ্ন

      তিনি বলতেন নগরে ভিক্ষা করোনা তাতে অসম্মান হয়
      তুমি তারচে বেহালো নিয়ে গান কর
      আমি তাতেও অক্ষম !!
      তাই আজকাল লিখি……………ভালো লাগে আপনাদের ভালোবাসা কুড়াতে

      ভালো থাকুন

  3. sokal.roy@gmail.com'
    সকাল রয় জুন 7, 2011 at 11:50 পূর্বাহ্ন

    আহা ফুলেল শুভেচ্ছা

  4. নীল নক্ষত্র জুন 7, 2011 at 3:23 অপরাহ্ন

    আপনার কথার বিনুনি অতি শক্তি শালী।
    ভাবটা বেঁধে রাখার চেষ্টা করবেন। ধীরে ধীরে পরিধি বাড়িয়ে তোলার চেষ্টা করুন।
    ধন্যবাদ।

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 7, 2011 at 5:07 অপরাহ্ন

      হয়তো চারপাশে ফুল ফুটতো যদি কিনা বিলাতে পারতাম ভালোবাসা
      কিন্তু কাটাকে ফ্রেমে বন্দি করে তাতে নাক ডুবিয়েছি তাই আজকাল কম-কম পাচ্ছি
      __________________________________________
      কথা মাথায় থাকলো
      ভালোলাগলো
      উতসাহ পেলাম
      ভালো থাকুন

  5. bonhishikha2r@yahoo.com'
    বহ্নিশিখা জুন 8, 2011 at 9:23 পূর্বাহ্ন

    অরুদ্ধের মুক্ত কথামালাশৈলী বেশ লাগল।
    %%- :rose: %%-

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 9, 2011 at 7:42 পূর্বাহ্ন

      যে কথা কাচের চেয়ে তীক্ষ্ণ তাকে কি ধরে রাখা যায় সে, যে আসে খুব করে বেধাতে আমায়
      ______________________________________________________

      ভালো লাগলো উপস্থিতি

  6. রাজন্য রুহানি জুন 8, 2011 at 5:56 অপরাহ্ন

    আপনার এই গল্পের মেজাজটাই আলাদা। ভিন্ন অনুভবের।
    :rose:

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 9, 2011 at 7:45 পূর্বাহ্ন

      মাঝে মাঝে পুকুর হতে ইচ্ছে করে তাই ঝাপিয়ে পড়ি উপর থেকে ঝাপাই
      ____________________________________________
      ভালো থাকুন রাজন্য

  7. mamunma@gmail.com'
    মামুন ম. আজিজ জুন 8, 2011 at 6:35 অপরাহ্ন

    কাব্যগল্প …আহা! কি বেশ!

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 9, 2011 at 7:49 পূর্বাহ্ন

      যদি থেকে যেত বৃষ্টির ছাপ তাহলে পেতাম তোমায় সারারাত নামলো বেদম তাই মুছে গেল সেই ছাপ
      নাহ্ পেলাম না তোমায়………………..
      ________________________________________________
      ধন্যবাদ মামুন

  8. shamanshattik@yahoo.com'
    শামান সাত্ত্বিক জুন 8, 2011 at 10:57 অপরাহ্ন

    বেশ ভাল লাগলো সকাল।

    চোখপাতার বারুদ খসে দিলাম তাকে, ‘ধোয়া উঠুক’

    ভীষণ কাব্যিক। শুভেচ্ছা।

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 9, 2011 at 7:55 পূর্বাহ্ন

      বেধে দিতে পারিনি চোখ সে, শুধু দেখে যে যায়
      মাথায় কথা জট পাকায়
      তখন খুলে হৃদয় দর্পন লিখি
      জানিনা কতখানি অনুভুতি জাগাতে পারি……………..
      _______________________________________

      ধন্যবাদ শামান দা

  9. rabeyarobbani@yahoo.com'
    রাবেয়া রব্বানি জুন 9, 2011 at 2:26 পূর্বাহ্ন

    খুব ভালো লাগল অরুদ্ধ।
    কথাশৈলী চমৎকার।
    শুভ কামনা।
    আরো লিখুন পড়তে চাই।

    • roy.sokal@yahoo.com'
      অরুদ্ধ সকাল জুন 9, 2011 at 7:52 পূর্বাহ্ন

      শুধু পড়লেই কি হয়
      কিছু লিখতে যে হয়

      যদি না লিখেন
      তাহলে কিভাবে পড়ি

      ________________________________________

      যে লেখার কাগজখানি নৌকা করে দিলাম ভাসিয়ে সে নৌকা চললো ধেয়ে নদীর কুল ছাপিয়ে
      _____________________________________________

      ধন্যবাদ
      রাবেয়া

  10. juliansiddiqi@gmail.com'
    জুলিয়ান সিদ্দিকী জুন 9, 2011 at 3:03 অপরাহ্ন

    আমি তো ভাবি আরুদ্ধের কাঁধে না কলমে রবীন্দ্রনাথ ভর করেছিলেন?
    চমৎকার!

    :rose:

You must be logged in to post a comment Login