Home » Entries posted by মুহাম্মদ সাঈদ আরমান
saarman2001@yahoo.com'
Entries posted by মুহাম্মদ সাঈদ আরমান

নবীনের গান

১৩/০৫/২০১২ আমার ওয়েবসাইট

ফাগুনের গান

3 Comments

ফুল এনেছে ফাল্গুনি খুকি মালা যায় বুনি, ভোমরে গায় গুনগুনি শুনে নাচে টুনটুনি। ফাল্গুনি ফাল্গুনি তোর জন্য দিন গুনি। মৌমাছি আর বুলবুলি চষে বেড়ায় ফুলগুলি, আল্লাহু নাম সুর তুলি কোকিল কণ্ঠে গান শুনি। ফুল এনেছে ফাল্গুনি সবার মুখে গুনগুনি। শিল্পীরা সব মন ভুলি আঁকছে দিয়ে রং-তুলি, রঙ বাহারী ফুল গুলি প্রজাপতি যায় গুনি। ফুল এনেছে […]

Continue reading …

ভোরের ডাক

6 Comments

পায়রা ডাকে বাকবাকুম যা টুটে যা খোকার ঘুম ঘুমের পরী চলে যা গলার মালা রেখে যা। বাকবাকুম বাকবাকুম যা চলে যা খোকার ঘুম। মোরগ ডাকে কুক্কুরু কু জাগো জগো ঘুমখুকু অজু কর নামাজ পড় খুশি হবেন আল্লাহু । কুক্কুরু কু জাগো খুকু দয়াল প্রভু আল্লাহু।।

Continue reading …

খুকির ছাতা

10 Comments

বিষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর ছাতার পড়ল টান পাখ-পাখালি ছাতা ধরে গাইছে বিষ্টির গান। ছাতা মাথায় ঘাসফড়িংটা শ্বশুর বাড়ি যায় হাঁস চলেছে ছাতা হাতে বুট পরেছে পা’য়। শিয়াল ডাকে ‘হাঁসু বন্ধু’ যাচ্ছ তুমি কই? শিয়াল বাড়ি এসো বন্ধু দেব গরম খই। ছাতা মাথায় খুকি গেল কদম গাছের তলে পাগলা হাওয়া ছাতাটা রে ফেলল নদীর জলে। কদম […]

Continue reading …

শেয়াল দলের মিটিং হল পতিবাড়ির জঙ্গলে ঐক্যমত করল পোষণ পশু-পাখির মঙ্গলে। হাঁসেরা সব চরবে ডাঙ্গায় চরবে ছাগল ঝোপে খোপের দরজা খোলা রেখে থাকবে মুরগী খোপে। কুকুর জাতি রাজ্য ছাড় বাঁচতে যদি চাও নইলে তাদের নিধন কর যখন যেথায় পাও। বনমোরগ আর শেয়াল মিলে খেলবে কুস্তি খেলা পশু-পাখি অবাক হয়ে দেখবে সারা বেলা।

Continue reading …

বন্ধুর পরিচয়

4 Comments

শখের বশে সুজন-সুমন দেখতে গেল বন ঝর্ণার নৃত্য পাখির কুজন ভরে দিল মন । ক্লান্ত দেহ করতে শীতল বসবে গাছের নিচে হঠাৎ দেখে বন্য ভালুক আসছে তেড়ে পিছে। কালো দেহের বাত্তি দেখে পিলে চমকে যায় সুজন চড়ল গাছের পরে সুমন গাছ তলায়। সুমন বলে বন্ধু তোমার হাতটা একবার দাও বিপদ থেকে জলদি আমায় উদ্ধার করে […]

Continue reading …

ইচ্ছে করে

3 Comments

বার বার দেখতে ইচ্ছে জাগে যাদের আমি দেখেছি ক্ষমা চাইতে ইচ্ছে জাগে যাদের সাথে খেলেছি। পড়তে ভীষণ ইচ্ছে করে যত বাক্য লিখেছি হিসেব করতে ইচ্ছে করে কত কথা গিলেছি। আবার শুনতে ইচ্ছে করে মধুর যত শুনেছি বলতে বড্ড ইচ্ছে করে স্বপ্ন যত বুনেছি। ইচ্ছা আমার কিচ্ছা হলো পূর্ণ হলো না কায়া বাড়লো আয়ু বাড়লো হুঁশ […]

Continue reading …

বোয়াল ধরল পুঁটির লেজা পুঁটি দিল লাফ তাই না দেখে সোনাব্যাঙে জলে দিল ঝাঁপ । বোয়াল-পুঁটির কাণ্ড দেখে হাসে গাছের ফুল জবা হাসে ডালে ঝুলে কানে দিয়ে দুল। পুকুর জলে শাপলা হাসে মেলে সাদা দাঁত লতায় বসে গোলাপ হাসে মাথা করে কাত । দোয়েল হাসে লেজ উঁচিয়ে চড়ুই হেসে নাচে হাসা-হাসির চলছে খেলা পুকুর পারের […]

Continue reading …

এক আমাদের গ্রামের আলী দাদা। সবাই ডাকত ‘আইল্যা দাদা’ । মা-বাবা,ছেলে-মেয়ে সবার দাদা। সকালে বাজারের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুর করে পৌঁছতেন বিকালে। বাড়ি ফিরতেন রাতে ক্লান্ত-শ্রান্ত হয়ে। গ্রাম থেকে বাজারের দুরত্ব মাত্র দেড় কিলোমিটার। দাদাকে রাস্তায় দেখলেই দূর থেকে কেউ ‘খা ভাজা ইলিশ খা’ বললেই শুরু করে দিতেন অকথ্য ভাষায় গালাগাল। সামনে যা পেতেন তা দিয়ে […]

Continue reading …

কবিতা তুমি কোথায় থাকো? আসবে আমার বাড়ি? অঙ্গ জুড়ে গয়না দেবো, দেবো মসলিন শাড়ি। আলতা দেবো,মেন্দি দেবো, দেবো মিষ্টি পান। নকশি পাখায় করবো বাতাস, আর শুনাবো গান। আঙ্গিনাতে মাদুর পাতি, গল্প হবে সারা রাতি, গগন জুড়ে লক্ষ তারা, জ্বালবে প্রদীপ-বাতি। কবিরা সব তোমায় নিয়ে, গাঁথে কাব্য মালা। আমার বাড়ি এসো যদি, দবো সোনার বালা। কবিতা […]

Continue reading …

জীবনের সুখ-দুঃখের স্মৃতি গুলো ছাড়া আরও কিছু স্মৃতি আছে, যেগুলো সুখের না দুঃখের অনুমান করা কঠিন। মাঝে মধ্যে এই স্মৃতিগুলো বিশ্লেষণের চেষ্টা করি, কিন্তু শ্রেণীবিন্যাস করতে পারি না। মস্তিষ্ক একটু অবসর পেলেই স্মৃতিভাণ্ডার হাতড়ায়। অগণিত স্মৃতিগুলোর মধ্যে একটি, এই মুহুর্তে বারবার মনের পর্দায় ভেসে উঠছে। কোন ভাবেই ওটাকে সরানো যাচ্ছে না। প্রত্যেকটা স্মৃতিতেই স্থান, কাল […]

Continue reading …

মিতুর শখ

11 Comments

এক মিতুর মন খারাপ। বাবা তাকে জাগাতে আসে নি। অন্য দিন মাথায় হাত বুলিয়ে জাগিয়ে তুলতো। মিতু ইচ্ছাকৃত ভাবেই ঘুমের ভান ধরে থাকতো। মিতুর মনে আজ প্রচণ্ড অভিমান । মা ফিরে আসার পর থেকে বাবা যেন কেমন হয়ে গেছে। আগের মত মিতুর সাথে গল্প করে না। গত দুই বছর বাবাকে মিতু বেশী আপন করে পেয়েছিল। […]

Continue reading …
Page 1 of 212