সাভার দূর্ঘটনায় আহতের জন্য প্রবাসী বন্ধুদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানাচ্ছি!

বিষয়: : খবর,মানবতা |

72142_4753380194231_1597118878_nছবি: ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে বাঁচার আকুতি

===================================================

সর্বশেষ আপডেট ৬: এপর্যন্ত সর্বমোট সংগৃহীত অর্থের পরিমাণ: ২,৩৪,০৭৭.২৭ টাকা (বা ৩,০৪৭.৮০ কানাডিয়ান ডলার। 

আমরা এখান থেকে ইতিমধ্যে প্রাথমিক উদ্ধারকাজে অর্থ সরবরাহ করেছি। আমরা আহত, নিহত এবং নিখোজদের পুনবাসনের লক্ষ্যে আমি এনাম মেডিকেল হাসপাতালের প্রধান ডাক্তার ড. এনাম এবং রেডক্রিসেন্ট ভাইস চেয়ারম্যান এর সাথে কথা বলেছি। যেহেতু আমরা চাই বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রাপ্ত সাহায্য সুষ্টুভাবে বন্টিত হোক সকলের কাছে, তাই ক্ষতিগ্রস্হতের লিস্ট ধরে ধরে এগুচ্ছি। একটি পরিবার ২ জায়গা থেকে আর একটি পরিবার কোথাও থেকে কোন সহায়তা পেল না, এরকমটি যেন না হয়! যোগাযোগ করছি গুরুতর আহতদের পরিবারের সাথে।

===================================================

সর্বশেষ খবর [রাত ১টা, ২৯ এপ্রিল]: প্রাথমিক উদ্ধারকাজ শেষ। ধ্বংসস্তূপ সরানো শুরু। কাজ করা হচ্ছে খুব ধীরে ধীরে। কেউ বেঁচে থাকলে সে ক্ষতিগ্রস্ত যেন না হন সেজন্যে এই ধীরগতি। সেনাবাহিনীর প্রতি আমাদের আছে পূর্ণ আস্হা। এম্বুলেন্সও প্রস্তুত। আর একটা মানুষও যদি ককিয়ে ওঠে, তাকেও যদি বাচানো যায়, এটাই হবে অনেক অনেক। একটা ছোট ‘গোঙ্গানিও’ আমাদের ‘আনন্দ’ অনেক অনেকগুন বাড়িয়ে দিতে পারে। সবাই দোয়া/আর্শীবাদ করুন প্লিজ।

===================================================

সর্বশেষ আপডেট ৫: এপর্যন্ত সর্বমোট সংগৃহীত অর্থের পরিমাণ: ১,৭১,৯২৩.৬৮ টাকা (২২৩৮.৫৩ কানাডিয়ান ডলার।

এই মুহুর্তে আবারও অক্সিজেনের স্বল্পতা দেখা দিয়েছে বলে আমরা রাকিব কিশোর, কিছলু এবং টিমের মাধ্যমে একটি গাড়ি দিয়ে প্রচুর পরিমাণ শুকনো খাবার, পানি, জুস, অক্সিজেন, টুলস ও টর্চ লাইট মিরপুর ১ নাম্বার থেকে সাভারের দুর্ঘটনাস্থলে সরবরাহ করছি। স্হানীয় দোকানগুলোতে তা পাওয়া যাচ্ছিল না। এর আগে আমরা আমাদের টিম দিয়ে ইতিমধ্যে প্রচুর সংখ্যক ব্যাগ অক্সিজেন স্প্রে, জরুরি ভিত্তিতে যে ঔষধগুলো দরকার সেগুলো সাভারে ব্যবহার করা হযেছিল। এ পর্যন্ত আমরা সেখানে ৫৫,৩২৬.১৬ টাকা সরঞ্জাম কিনে সাভারে পাঠিয়েছি। মুল ব্যাপারটি ছিল “তাৎক্ষনিকতা। সিভিল টিমের দীর্ঘসূত্রিতা অনেকগুলো বাড়তি প্রাণ ঝড়িয়ে দিতে পারত।

অক্সিজেনের মূল্য এবং এর প্রয়োজনীয়তা হাড়ে হাড়ে টের পাওয়া যাচ্ছে! এক বোতল অক্সিজেনের দাম ৬০০ টাকা, কিন্তু সবচেয়ে আফসোসের কথা: এখানে অক্সিজেন থাকে মাত্র ১৮০ – ২০০ সেকেন্ড!!! সেই বোতলগুলো যখন দুর্ঘটনাস্থলে রাখা হয় তখন নিতান্তই কম হয়ে যায়। “১৮০ সেকেন্ডের জীবনগুলো” মুহুর্তেই যেন গায়েব হয়ে যায়!! ভারী অক্সিজেন গুলোও ভেতরে নেয়া যাচ্ছে না বলে সরবরাহও করা যাচ্ছে না। তাই সত্যিকার অর্থেই প্রচুর অক্সিজেন ‘কেন’ প্রয়োজন ছিল!

যেহেতু জেনেছি যে, সরকার ফলো-আপ সাজারী/মেডিকেশন এর ব্যয়ভার বহন করবার ঘোষনা দিয়েছে, তাই আমরা আমাদের বাকি সংগৃহীত অর্থ পোস্ট মেডিকেশন এবং পৃনর্বাসনে ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারন হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার পরেই শারীরিকভাবে অক্ষম তাদেরকে বহন করতে হবে কঠিন সংগ্রামী পথ। এখনও প্রায় ৮৬৯ নিখোজ। এইসব নিখোজরাই হয়তো পরিবারের একমাত্র চালিকাশক্তি ছিল। গুরুতর আহত এবং নিখোজদের পরিবারের পুর্নবাসনের জন আমরা আমার জমাকৃত অর্থ ব্যয় করতে চাই। আজ সকালে আমি “রেডক্রিসেন্ট ভাইস চেয়ারম্যান” হাফিজ মজুমদার ভাইয়ের সাথে ফোনে কথা বলেছি। উনিও তাদের আর্থিক ভান্ডারের প্রচুর অপর্যাপ্ততার কথা বললেন। আমরা এখন জোড় দিচ্ছি যারা শারীরিভাবে অক্ষম হয়ে পড়বে তাদের পাশে দাড়ানো। অনেকের হাত কাটা পড়েছে, পা নেই তাদের জন্য একটা সেলাইমেশিন, একটা হইলচেয়ার, একটা প্রোথিসিস তাদের তখন অনেক সুফল বয়ে আনবে নি:সন্দেহে।

আমাদের এই সীমিত অর্থ পুর্নবাসন এবং পোস্ট মেডিকেশন এর জন্য নিতান্তই অল্প। তবুও আমরা এই সীমিত সামর্থ্য দিয়েও এগিয়ে যাব।

===================================================

সর্বশেষ আপডেট ৪: [রাত ২টা, ২৭ এপ্রিল] এপর্যন্ত সর্বমোট সংগৃহীত অর্থের পরিমাণ: ১,৬১,২৬৩.২০ টাকা (২১০৬ কানাডিয়ান ডলার। আমার সাথে “ইমরান এইচ সরকার”, “মারুফ রউসুল”, “ইরেশ জাকের”, “রেডক্রিসেন্ট চেয়ারম্যান”, “আর্মি কমান্ডার” “এনাম মেডিকেল কর্মকতা” র সাথে ফোনে কথা হয়েছে। তারা আমদেরকে নানানভাবে সাহায্য করছেন বর্তমান পরিস্থিতির সঠিক তথ্য দিতে এবং সহায়তা করে। আমরা গতকাল ~৩০,০৩০ টাকা দেশে পাঠিয়েছি। এবং রাকিব কিশোর, কিছলু এবং টিম অক্সিজেন,ওষুধ এবং প্রয়োজনীয় আনুষাঙ্গিক সরঞ্জামাদি দুর্ঘটনাস্হলে সরবরাহ করেছেন ইতিমধ্যে। আজ আমরা দ্বিতীয় কিস্তিতে আরও ২৫,২৯৬.১৬ টাকা পাঠিয়েছি দেশে অক্সিজেন স্বপ্লতা মেটানোর জন্য। ইমিধ্যে টিম কাজ শুরু করে দিয়েছে। রাতের বেলা কাজ করার মানুষ কমে যায়, তাই সেই সময়ই সবচেয়ে বেশি লোক এবং সহায়তা দরকার।

সাভারে এখন অক্সিজেন স্বল্পতা এবং টুকটাক জিনিস ছাড়া অন্যান্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদির পর্যাপ্ত মজুদ আছে বলে আমরা জেনেছি। দু/তিনদিন পর আহতদের চিকিৎসা, পুনর্বাসন এর জন্য বিপুল অর্থের প্রয়োজন পড়বে। তাই আমরা আমাদের সংগৃহীত অর্থগুলো আহতদের চিকিৎসা, পুনর্বাসন এ ব্যয় করার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অনেকের হাত কাটা পড়েছে, পা নেই, তাদের চিকিৎসা ব্যয় অপ্রতুল। আমি এ নিয়ে রেডক্রিসেন্ট কর্মকর্তার সাথে কথা বলেছি। রেডক্রিসেন্ট এবং সাজেদা ফাউন্ডেশন ইতিমধ্যে আহতদের পুনবার্সন ব্যয়টা এস্টিমেট করছে। এর জন্য এক থেকে দুই দিন প্রয়োজন। এখন বর্তমান পরিস্হিতি মোতাবেক পুনর্বাসন এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের চিকিৎসা সহায়তা (প্রাথমিক চিকিৎসার কথা বলছি না) করাটা দীর্ঘমেয়াদি সুফল আনবে বলে আমরা বাকি টাকাটা সেখানেই সরবরাহ করব বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। প্রয়োজন জানা মাত্র আমরা ইমিডিয়েট সহায়তা করার জন্যও প্রস্তুত আছে।

বি:দ্র: 1) আমি ব্যক্তিগতভাবে দুইজন ডাক্তার বন্ধুকে বলে রেখেছি সাভারে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে। আর ডা: ইমরান এইচ সরকার কে বলে রেখেছি এ ব্যাপারে প্রয়োজন পড়লে আমাকে জানাতে। তবে উনি ভলান্টিযার এর প্রয়োজনের কথা আমাকে জানালেন। তাই আপনারা যারা ঢাকায় থাকেন, তাদেরকে বলছি প্লিজ সেখানে যান, এবং ফিল্ড হাসপাতালগুলোতে তাদের কে সহায়তা করুন।

2) সাভার এর ভিক্টিম দের জন্য রক্ত দিতে চাইলে আগামীকাল, শনিবার সকাল ১০ টার থেকে রক্ত নাওয়া শুরু হবে Asiatic Center, House 63, Road 7b, Block H, Banani তে। বিশেষ করে যাদের negative blood type, তাদের রক্তদানের জন্য আহ্বান করা হচ্ছে। এই উদ্যগটি সন্ধ্যানি এবং Bangladeshi Medical Student Society র সাথে নাওয়া হচ্ছে।

===================================================

সাভার ফান্ড আপডেট ৩:

এই পর্যন্ত শৈলী ফাউন্ডেশন এবং আমার যৌথ উদ্যেগে টাকা জমা হয়েছে: ১,৪২,৫২৩.৪৪ টাকা (১,৮৬১.২৭ কানাডিয়ান ডলার)। এই ফান্ডটি সংগ্রহে প্রবাসী বাঙ্গালীরা যে যার সাধ্যমত সাহায্য নিয়ে এগিয়ে এসেছেন। এজন্য সকল ডোনারদেরকে ধন্যবাদ জানাোনার ভাষা আমার জানা নাই। এখন জানাচ্ছি খরচের বিস্তারিত:

১) ইতিমধ্যে ১০০+ ব্যাগ অক্সিজেন স্প্রে, জরুরি ভিত্তিতে যে ঔষধগুলো দরকার সেগুলো কেনা হয়েছিল এবং সাভারে ব্যবহার করা হযেছে।
Medicine: Inj. Seftriaxon,
Inj. Ketorolac,
Inj. Omeprazole,
Inj. TT,
Inj. TIG,
IV Saline,
IV Hartman Solution,
Thread Silk.

এ কাজে আমাদের হয়ে সাভারে কাজ করছেন রকিব কিশোর এবং “আমরা খাটি গরীব” টিম।

পাশাপাশি বিল্ডিং এর মেশিন টুল, টর্চ লাইট, মাথায় হেলমেট, অন্যান্য আনুষঙ্গিক সরঞ্জামও পৌছে দেওয়া হচ্ছে দ্রুত!

২) ইরেশ জাকেরের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। আহত এবং নিহতদের পরিবারের পুনর্বাসনের জন্য তার কাছে আমরা এক তৃতীয়াংশ অর্থ পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়েছি। এবং তাকে সহযোগিতা করবে আমাদের নিজস্ব দুইজন সাভার প্রতিনিধি।

৩) আমরা বাকি এক তৃতীয়াংশ গণজাগরণ মঞ্চের ফিল্ড হসপিটালে এবং এনাম মেডিকেলে ব্যবহার করার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এজন্য আমরা ইমরান এইচ সরকারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। খবর জানা মাত্রই আপডেট জানাব।

আমরা সিচুয়েশন বুঝে ব্যয় করার ক্ষেত্র পরিবর্তন করতে পারি।

এ কাজের এ কাজে যা খরচ হচ্ছে বা হবে, তার সকল তথ্য আমাদের শৈলী ব্লগে পরিশেষে বিস্তারিত হিসাব দেওয়া হবে।

জয় মানবতা!
====================================================

সাভার ফান্ড আপডেট ২:

সাভারে আহতদের জন্য নেগেটিভ ব্লাডের জরুরী দরকার !!!

পর্যাপ্ত পরিমাণে পজেটিভ গ্রুপের ব্লাড সংগ্রহ হয়েছে। এনাম মেডিকেল থেকেও জানানো হয়েছে যথেষ্ট পজেটিভ ব্লাড আছে। কিন্তু নেগেটিভ গ্রুপের ব্লাড একদমই নেই। যাদের ব্লাড গ্রুপ নেগেটিভ (A-, B-, AB- কিংবা O-), এবং যারা রক্তদানে সক্ষম, তারা দয়াকরে দ্রুত সাভার ট্র্যাজেডীর জন্য নিকটস্থ স্থায়ী/অস্থায়ী কেন্দ্রে গিয়ে ব্লাড দিয়ে আসুন।

দেরী করবেন না! নেগেটিভ গ্রুপের রক্ত দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুন-

TSC, Dhaka University –
01711025876 (টিএসসি)
8629042
01711025876
01720080012
01917264615

BUET, Dhaka
01912082919
01712180246

Jahangirnagar University, Savar
01923337010 (জাহাঙ্গীরনগর)

Enam Medical College Hospital, Savar –
01681212777
02-7743778-82

ডাঃ সনেট: 01711733175 (শাহবাগ)
ডাঃ টিপু: 01714107670 (শাহবাগ)
ডাঃ উজ্জ্বল-০১৭১৭৬৪৩২০৫
সাগর- ০১৯২৫১৫০২০৪

====================================================

সাভার ফান্ড আপডেট ১: আমার পেপল একাউন্টে ইতিমধ্যে $১০০৪ (76,650 taka) জমা হয়েছে। যদিও প্রয়োজনের তুলনায় এই টাকা নগন্য। আমরা জমাকৃত টাকার প্রথম কিস্তি ইতিমধ্যে সাভারে পাঠিয়ে দিয়েছি: প্রথমাবস্থায় এই অংশ দিয়ে ১০০ ব্যাগ অক্সিজেন স্প্রে, জরুরি ভিত্তিতে যে ঔষধগুলো দরকার সেগুলো কেনা হচ্ছে এখন প্রয়োজনীয় সংখ্যক!
Medicine: Inj. Seftriaxon,
Inj. Ketorolac,
Inj. Omeprazole,
Inj. TT,
Inj. TIG,
IV Saline,
IV Hartman Solution,
Thread Silk.

পাশাপাশি বিল্ডিং এর মেশিন টুল, টর্চ লাইট, মাথায় হেলমেট, অন্যান্য আনুষঙ্গিক সরঞ্জামও পৌছে দেওয়া হচ্ছে দ্রুত! দোয়া/আর্শীবাদ করবেন সাভারে আহতদের জন্য। আমাদের আরও অর্থের প্রয়োজন। সকলের সাহায্য কামনায়… কালকে পাঠাবো আমরা দ্বিতীয় কিস্তি… আপডেট আসছে শিঘ্রী…

======================================================

প্রবাসী বন্ধুদের কাছে সামান্য হলেও সাহায্যের প্রত্যাশা নিয়ে এসেছি। এই মুহুর্তে নানানভাবে সাভারের মানুষেরা কাতরাচ্ছেন। অনেক অনেক রক্ত দরকার সেখানে, অনেক অনেক অর্থ দরকার। আমরা প্রবাসী বন্ধুরা হয়তো পারছি না স্বশরীরে গিয়ে তাদের পাশে দাড়াতে। কিন্তু অন্তত অর্থসাহায্য করতে পারি। শরীরের রক্ত দিয়ে, হসপিটালের ডাক্তার ও নার্সরাও তাদের সেবা দিয়ে সাভারে সংঘটিত দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছেন অনেকে। প্লিজ আমার প্রবাসী ভাইদের প্রতি অনুরোধ $৫, $১০ ডলার করে হলেও যদি পারেন সহায়তা করুন। এই অর্থ আহতদের ওষূধপত্র, এবং প্রয়োজনীয় সামগ্রী ক্রয়ের জন্য পাঠিয়ে দিব আমরা।

এই মুহুর্তে রানা-প্লাজার বিপুল সংখ্যক মানুষ বিভিন্ন হাসপাতালে এডমিটেড। তাদের দরকার ওষুধ কেনার জন্য অর্থ, পথ্য কেনার জন্য টাকা যা হয়তো গার্মেন্ট কর্মীদের সাধ্যের বাইরে। প্লিজ $৫, $১০ যা পারেন তাই দিয়ে সাহায্য করতে এগিয়ে আসুন।

বি: দ্র: কানাডার আলবার্টা থেকে হারুন মোহাম্মদ আমাদেরকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে। সে প্রিয় আলবার্টাবাসীদের থেকে টাকা তুলতে সহায়তা করবে।

এত যদি আমরা একজন মানুষকেও সহায়তা করতে পারি সেটাও তো হবে আমাদের কাছে অনেক।

প্লিজ এগিয়ে আসুন।

১)অনলাইনে প্যে-পালের মাধ্যমে পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত হতে সাহায্য পাঠাতে পারেন Paypal এর মাধ্যমে: “ripon4t@gmail.com”। প্লিজ নিচের বাটনে ক্লিক করুন:









২) যারা দেশে ব্যংকের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে চান তারা নিচে একাউন্টে পাঠাবেন প্লিজ:

Bank name: Prime bank BD, Bangladesh
Account name: Anima Rani Dey
Account number: 10921050009675

৩) অথবা আপনি “শৈলী ফাউন্ডেশন” এর পেপল ঠিকানায়ও টাকা পাঠাতে পারেন: shoilyblog@gmail.com

আমার ফেইসবুক আইডি: লিংক

Its not the movie, its reality!!!

Its not the movie, its reality!!!

সমান সান্নিধ্যে আমার বিশ্বাস নেই। কিংবা কাছাকাছি জল ছুঁবার একান্ত ইচ্ছেতে ও। বরং দূরে থাকা তারার হাড় স্পর্শ করে বলে দিতে পারি , এরাও মরে গেছে অনেক আগে। পৃথিবীর জন্মের দুহাজার সাল আগে।একদিন অথবা একরাতে গল্প করতে করতে বলে গেছে সেইসব অগনিত মৃত্যুকাহিনী। যা তুমি জানো, কিয়দংশ আমিও জানি। আমার ফেইসবুক আইডি: লিংক
শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

2 টি মন্তব্য : সাভার দূর্ঘটনায় আহতের জন্য প্রবাসী বন্ধুদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানাচ্ছি!

  1. সাভার ফান্ড আপডেট: আমার পেপল একাউন্টে ইতিমধ্যে $১০০৪ (76,650 taka) জমা হয়েছে। যদিও প্রয়োজনের তুলনায় এই টাকা নগন্য। আমরা জমাকৃত টাকার প্রথম কিস্তি ইতিমধ্যে সাভারে পাঠিয়ে দিয়েছি: প্রথমাবস্থায় এই অংশ দিয়ে ১০০ ব্যাগ অক্সিজেন স্প্রে, জরুরি ভিত্তিতে যে ঔষধগুলো দরকার সেগুলো কেনা হচ্ছে এখন প্রয়োজনীয় সংখ্যক!
    Medicine: Inj. Seftriaxon,
    Inj. Ketorolac,
    Inj. Omeprazole,
    Inj. TT,
    Inj. TIG,
    IV Saline,
    IV Hartman Solution,
    Thread Silk.

    পাশাপাশি বিল্ডিং এর মেশিন টুল, টর্চ লাইট, মাথায় হেলমেট, অন্যান্য আনুষঙ্গিক সরঞ্জামও পৌছে দেওয়া হচ্ছে দ্রুত! দোয়া/আর্শীবাদ করবেন সাভারে আহতদের জন্য। আমাদের আরও অর্থের প্রয়োজন। সকলের সাহায্য কামনায়… কালকে পাঠাবো আমরা দ্বিতীয় কিস্তি…

    রিপন কুমার দে
    এপ্রিল 25, 2013 , 8:08 অপরাহ্ন

  2. সাভার ফান্ড রাইজিং আপডেট ৩: এই পর্যন্ত শৈলী ফাউন্ডেশন এবং আমার যৌথ উদ্যেগে টাকা জমা হয়েছে: ১,৪২,৫২৩.৪৪ টাকা (১,৮৬১.২৭ কানাডিয়ান ডলার)। এই ফান্ডটি সংগ্রহে প্রবাসী বাঙ্গালীরা যে যার সাধ্যমত সাহায্য নিয়ে এগিয়ে এসেছেন। এজন্য সকল ডোনারদেরকে ধন্যবাদ জানাোনার ভাষা আমার জানা নাই। এখন জানাচ্ছি খরচের বিস্তারিত:

    ১) ইতিমধ্যে ১০০+ ব্যাগ অক্সিজেন স্প্রে, জরুরি ভিত্তিতে যে ঔষধগুলো দরকার সেগুলো কেনা হয়েছিল এবং সাভারে ব্যবহার করা হযেছে।
    Medicine: Inj. Seftriaxon,
    Inj. Ketorolac,
    Inj. Omeprazole,
    Inj. TT,
    Inj. TIG,
    IV Saline,
    IV Hartman Solution,
    Thread Silk.

    এ কাজে আমাদের হয়ে সাভারে কাজ করছেন রকিব কিশোর এবং “আমরা খাটি গরীব” টিম।

    পাশাপাশি বিল্ডিং এর মেশিন টুল, টর্চ লাইট, মাথায় হেলমেট, অন্যান্য আনুষঙ্গিক সরঞ্জামও পৌছে দেওয়া হচ্ছে দ্রুত!

    ২) ইরেশ জাকেরের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। আহত এবং নিহতদের পরিবারের পুনর্বাসনের জন্য তার কাছে আমরা এক তৃতীয়াংশ অর্থ পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়েছি। এবং তাকে সহযোগিতা করবে আমাদের নিজস্ব দুইজন সাভার প্রতিনিধি।

    ৩) আমরা বাকি এক তৃতীয়াংশ গণজাগরণ মঞ্চের ফিল্ড হসপিটালে এবং এনাম মেডিকেলে ব্যবহার করার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এজন্য আমরা ইমরান এইচ সরকারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। খবর জানা মাত্রই আপডেট জানাব।

    আমরা সিচুয়েশন বুঝে ব্যয় করার ক্ষেত্র পরিবর্তন করতে পারি।

    এ কাজের এ কাজে যা খরচ হচ্ছে বা হবে, তার সকল তথ্য আমাদের শৈলী ব্লগে পরিশেষে বিস্তারিত হিসাব দেওয়া হবে।

    জয় মানবতা!

    রিপন কুমার দে
    এপ্রিল 26, 2013 , 5:22 পূর্বাহ্ন

মন্তব্য করার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে। Login