ফটোরিয়ালিজমঃ চিত্রবাস্তবতার এক অবিশ্বাস্য জগত

Filed under: চিত্রকলা,ছবিশৈলী |

ওপরের ছবিটি দেখুন। এটি ক্যামেরায় তোলা কোন ফটোগ্রাফ বা আলোকচিত্র নয়, বরং হাতে আঁকা একটি ছবি! অথচ বিশ্বাস করা কঠিন। এ ধরণের ছবিতে বাস্তব দৃশ্যের সূক্ষাতিসূক্ষ বিষয়গুলো এমনভাবে ফুটিয়ে তোলা হয় যে হাতে আঁকা ছবি আর ক্যামেরায় তোলা ছবির মধ্যে পার্থক্য করা যায় না। বাস্তব কোন দৃশ্যকে ক্যানভাসে অবিকল অংকন করার এই চিত্রকলার নাম ফটোরিয়ালিজম বা চিত্রবাস্তবতা।

বিগত ষাটের দশকের শেষের দিকে আমেরিকায় বিমূর্ত ধারার চিত্রকলার বিপরীতে এই ফটোরিয়ালিজম ধারাটির জন্ম হয়। ১৯৬৯ সালে লুই কে মেইযেল নামে নিউইয়র্কের এক চিত্রব্যবসায়ী ‘ফটোরিয়ালিজম’ শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন। বলা বাহুল্য, এ ধরণের ছবি আঁকার ক্ষেত্রে ক্যামেরায় তোলা বাস্তব দৃশ্যের আলোকচিত্র বা ফটোগ্রাফ ব্যবহৃত হয়। বিগত দশকে উচ্চ মানসম্পন্ন ফটোগ্রাফের সমতুল্য চিত্রকলার একটি নতুন ধারা সৃষ্টি হয়েছে, যার নাম হাইপার-রিয়ালিজম বা অতিবাস্তবতা।

চিত্রকরগণ সাধারণত এক্রিলিক, তেল রঙ কিংবা জল রঙ ব্যবহার করে এয়ারব্রাশ অথবা তুলি দিয়ে হাতের সাহায্যে এ ধরণের ছবি আঁকেন। তবে সাধারণ পেন্সিল স্কেচও যে অসাধারণ ফটোরিয়ালিস্টিক হতে পারে, লিণ্ডা হিউবার (১৯৫৮) নামে এক আমেরিকান চিত্রশিল্পীর আঁকা নিচের ছবিগুলো তা-ই প্রমাণ করে।

ফটোরিয়ালিস্টিক চিত্রকরগণ বিভিন্ন বিষয় তাদের ছবিতে তুলে ধরেন। এর মধ্যে মানুষের প্রতিকৃতি একটি জনপ্রিয় বিষয়। ক্যামেরায় তোলা আলোকচিত্র ও হাতে আঁকা ফটোরিয়ালিস্টিক পোর্ট্রেটের মধ্যে পার্থক্য করা কঠিন। নিচে এ ধরণের কয়েকটি ছবি দেখুন।

প্রাকৃতিক কিংবা নাগরিক দৃশ্যকেও ফটোরিয়ালিস্টিক চিত্রের মাধ্যমে সুন্দরভাবে তুলে ধরা যায়। রাফায়েলা স্পেন্স (১৯৭৮) নামে এক ব্রিটিশ চিত্রশিল্পীর আঁকা নিচের ছবিগুলো তারই প্রমাণ।

কাঁচ, স্ফটিক কিংবা এরকম অন্যান্য স্বচ্ছ উপাদানে তৈরি জিনিসের ছবি আঁকা হচ্ছে ফটোরিয়ালিস্টিক চিত্রকরদের কাছে সবচেয়ে কঠিন বিষয়গুলোর একটি। স্বচ্ছ জিনিসের বর্ণহীনতা ও এতে আলোর প্রতিফলন ক্যানভাসে ফুটিয়ে তোলা বেশ কঠিন কাজ। রবার্তো বার্নার্দি (১৯৭৪) নামে এক ইটালিয়ান চিত্রশিল্পীর আঁকা নিচের ছবিগুলো দেখলে কে বলবে যে এগূলো হাতে আঁকা ছবি!

বাস্তব দৃশ্যকে সবচেয়ে নিখুঁতভাবে তুলে ধরে হাইপার-রিয়ালিস্টিক বা অতিবাস্তব চিত্রকলা। নিচে দেখানো এ ধরণের ছবি যেন ক্যামেরায় তোলা আলোকচিত্রকেও হার মানাবে।

এবার আমার প্রিয় ইরানিয়ান রিয়ালিস্ট চিত্রশিল্পী ঈমান মালেকীর (১৯৭৬) আঁকা কয়েকটি ছবি দেখুন।

প্রথমে যে অবিশ্বাস্য ছবিটি দিয়েছিলাম, তা কীভাবে ধাপে ধাপে আঁকা হয়েছে, নিচে দেখুন।

হাতে আঁকা ফটোরিয়ালিস্টিক ও হাইপার-রিয়ালিস্টিক ছবিকে কেউ কম্পিউটারে আঁকা ডিজিটাল চিত্রকলা ভাববেন না। আশা করি এই লেখাটি সবার ভাল লাগবে।

আমার ব্লগ দেখুন

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

7 Responses to ফটোরিয়ালিজমঃ চিত্রবাস্তবতার এক অবিশ্বাস্য জগত

  1. চমৎকার লেগেছে। অনেক ধন্যবাদ।

    shamanshattik@yahoo.com'

    শামান সাত্ত্বিক
    জুন 11, 2011 at 2:04 পূর্বাহ্ন

  2. অনেক ধন্যবাদ
    এই গুলো খুজছিলাম

    roy.sokal@yahoo.com'

    অরুদ্ধ সকাল
    জুন 11, 2011 at 8:08 পূর্বাহ্ন

  3. :-bd :rose: %%-

    mannan200125@hotmail.com'

    চারুমান্নান
    জুন 11, 2011 at 9:12 পূর্বাহ্ন

  4. অসাধারণ ! ধন্যবাদ আপনাকে।

    riton1975@gmail.com'

    জাহিদুল কবির রিটন
    ডিসেম্বর 1, 2013 at 1:34 অপরাহ্ন

মন্তব্য করুন