চোখ নিয়েও অন্ধ হয়ে আছি

Filed under: ‌কবিতা |

চোখ নিয়েও অন্ধ হয়ে আছি; গর্তে ইঁদুর
পলায়নপর সর্বদা,  ভীমরতির হলুদ পান্ডুলিপি
আয়োজন করে অন্য আইনের, বাতাসে ঘ্রাণ
ছড়াবার আগেই কুটিকুটির প্রস্তাব দিয়েছিল দাঁত
এখন কোরাসে শরীক সে হাস্যমাতমে,
লজ্জার অস্থিমজ্জা খাওয়া
পথে পথে সতর্ক চোখ বিড়ালের— ঝুঁটিনাড়া মোরগটাও
কুক্কুরু ভুলে ঝিমায় এখন ছিটানো বালাইয়ে,
হুকুমে হুকুমে পাতা নড়ে— ঘাড়ের তেড়া রগ
চট করেই সোজা করে দেয় মহাদানবী কর্তনের ভয়;

জন্মান্ধ নয় তো চোখ, দৃশ্যমান প্রতিফলনে
ঠোঁটেরা নড়েচড়ে ওঠে, কণ্ঠেরা গোয়ার্তুমি করে তাই

বিস্ফোরণ মুঠোবন্দী বিষাক্ত নীল-কালো-জলপাই রঙ;
লেফট-রাইটে ঈগলের চতুর থাবা, মাগো—
আরেকবার উড়াও আঁচল
নিরস্ত্র বীজবংশে জেগে উঠুক কংসজিতের গান

রচনাকাল : ১৯ আগস্ট ২০০৬
বিকেল ৫:৩৯

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।

26 Responses to চোখ নিয়েও অন্ধ হয়ে আছি

  1. ছড়াবার আগেই কুটিকুটির প্রস্তাব দিয়েছিল দাঁত

    কবিতা খুব ভালো লাগলো রাজন্য কবি

    sokal.roy@gmail.com'

    সকাল রয়
    আগস্ট 25, 2011 at 11:26 পূর্বাহ্ন

  2. শব্দের সুন্দর বিন্যাস, ভালো লাগল ভাইয়া। :rose:

  3. অন্তর্স্থলে বিদ্রোহ জমাট নিরুপায় বাহির ।চোখ নিয়েও এভাবে অনেকেই অন্ধ হয়ে বসে আছি ।তাদের হুঙ্কার শুনে সময়ে কানে হাত চাপা দেই আর অসময়ে ছটফট করি ।আপনার কবিতাটা অনেক মানউর্ত্তীর্ণ লাগল ।কিছু শব্দের প্রয়োগের জুড়ি নাই । স্বকীয়তা বেশ ।আসলেই সোদা মাটির কবি । শুভেচ্ছা অফুরানসলেই সোদা মাটির কবি । শুভেচ্ছা অফুরান

    rabeyarobbani@yahoo.com'

    রাবেয়া রব্বানি
    আগস্ট 25, 2011 at 5:25 অপরাহ্ন

  4. যতবার পড়ছি ততটাই বুঝে বুঝে উঠছি … আর ভালো লাগাও ঠিক তেমন ।

    সেদিন দেখছিলাম ওখানে সবারই খুব পছন্দ হয়েছিলো , বিশেষ করে ঐ লাইনটাতো বারবার মাঠের ওপাশ থেকে প্রতিধ্বনিত হচ্ছিল … অহংকার হচ্ছিল আমাদের কবি শৈলার রাজন্য । অভিনন্দন আপনার সব কবিতার মতোই বার্তা আছে নিজস্ব ধরণ আছে ছন্দের চলন আছে তবে পাঠক ছুঁয়ে থাকায় ক্ষমতাটা এই কবিতাটার অনেক বেশি ।

    … মাগো
    আরেকবার উড়াও আঁচল
    অনুভবে বেঁচে থাকা অগ্নিগুহা ।।

    … শান্তি ,

    imrul.kaes@ovi.com'

    শৈবাল
    আগস্ট 25, 2011 at 11:12 অপরাহ্ন

    • কী জানি ভাই, কবিতা-টবিতা হয় কি-না তা বোদ্ধা পাঠক আর শক্তিমান লেখকেরাই বলতে পারেন, আমি শুধু লিখি। অতশত জানি না, মনের আকুপাকু ভাব প্রকাশের শব্দমালা যে অনুরণন তৈরি করে তা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে দিই বীজধানের মতো; কালিক চেতনায় অঙ্কুরোদগম ঘটবে কি-না, তা নিরীক্ষণের দায়ভার সাহিত্যজমিনের।
      ………..
      ভালো থাকবেন কবি।
      শান্তি।
      :rose:

      রাজন্য রুহানি
      আগস্ট 27, 2011 at 12:33 অপরাহ্ন

      • কী হলো কবি ! মন খারাপ না কি , শরীর ভালো তো ! এইসব হিসাব কিতেবি কথা তো আপনার মুখ থেকে শুনি নি আগে কখনো …

        imrul.kaes@ovi.com'

        শৈবাল
        আগস্ট 27, 2011 at 2:03 অপরাহ্ন

        • ………
          ………………………………
          …………………………………………………………………..
          কোনো কোনো সময় শ্বাসেরা দীর্ঘ হলে দীর্ঘশ্বাস বলে জানি
          ক্রিয়ারও তো বিক্রিয়া আছে যখন-তখন করে টানাটানি
          এপাশের ওপাশের দ্বৈত টানে আমি বড়ো অসহায়
          কালের ফাঁন্দে পড়িয়া মনবগা কাঁন্দে রে ভাই
          …………………………………………………………………..
          ………………………………………………
          …………………………..

          রাজন্য রুহানি
          আগস্ট 27, 2011 at 4:57 অপরাহ্ন

  5. কবিতাটিতে একটি দুর্বোধ্য ভালোলাগা এবং প্রচ্ছন্ন হাহাকার আছে মনে হলো।

    irtiyazdustagir@gmail.com'

    ইরতিয়ায দস্তগীর
    আগস্ট 26, 2011 at 12:50 পূর্বাহ্ন

  6. বিস্ফোরণে মুঠোগুঁড়ো বিষাক্ত নীল-কালো-জলপাই রঙ;
    লেফট-রাইটে বিড়ালের চতুর থাবা, মাগো—
    আরেকবার উড়াও আঁচল, অনুভবে বেঁচে থাক অগ্নিগুহা

    প্রচ্ছন্ন হাহাকার আছে

    সোদা মাটির কবি
    :-bd

  7. একদম ঠিক এ যন্ত্রনা সহ্য অন্ধত্ব ছাড়া আর কি?

  8. ঠোঁটগুলো নড়েচড়ে ওঠে, কণ্ঠেরা গোয়ার্তুমি করে তাই

    শুভ কামনা।

    7back7@gmail.com'

    7back7
    সেপ্টেম্বর 7, 2011 at 3:53 অপরাহ্ন

    • ধন্যবাদ, লাকী সেভেন। নিরন্তর শুভ কামনা।

      >> নামটা বাংলায় করার অনুরোধ জানাই।

      রাজন্য রুহানি
      সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 10:55 পূর্বাহ্ন

  9. এক্সক্লুসিভ অভিনন্দন কবি ! ভালো থাকবেন । শান্তি

    imrul.kaes@ovi.com'

    শৈবাল
    সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 2:28 পূর্বাহ্ন

    • এত ব্যস্ত ছিলাম গো কবি, শৈলীতেও আসার সময় পাই নি। এইমাত্র কাজ শেষ করে শৈলীতে আজ এলাম। আপনার এফবিতে পাঠানো বার্তারও উত্তর দেওয়া হয় নি, ক্ষমাপ্রার্থী সেজন্যও।

      এক্সক্লুসিভ হয়েছে কবিতাটি, তাও দেখতে পাই নি যথা-সময়ে। আহা!

      কেমন আছেন গো কবি? সবকিছু চলছে তো সুস্থ-শান্তি প্রক্রিয়ার ভিতর?
      শান্তি।

      রাজন্য রুহানি
      সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 11:05 পূর্বাহ্ন

      • আমি বরাবরের মতোই বেশ আছি । না তো ! ফেসবুকে তেমন কিছু বলিনি যার জবাব দিতে হবে , আমার রোদ বিক্রেতার প্রমিত বানান চাচ্ছিলেন তো , তাই বললাম প্রউফ দেখছেন কিনা ।

        একটা সত্যি কথা বলি কবি ? শুধু এই কবিতাটা না , আপনার সব কবিতাই এক্সক্লুসিভ …

        বড় স্বার্থপরের মতো ভালোবেসেছি আপনাদের এটাই আরেকটু ভালো থাকার প্রক্রিয়া , আর অপ্রক্রিয়ায় দূরে থাকিয়ে থাকা আকাশ দেখা পাখি , দিগন্তের ম্লান সবুজ , ভেসে আসা মেঘ মেঘ মেঘ এর কোন কারণ নেই কেন ভালো লাগে , তেমনটাই ভালো আছি থাকবো …

        ভালো থাকবেন । সত্যিকারের শান্তিতে থাকবেন । শান্তি আমি বরাবরের মতোই বেশ আছি । না তো ! ফেসবুকে তেমন কিছু বলিনি যার জবাব দিতে হবে , আমার রোদ বিক্রেতার প্রমিত বানান চাচ্ছিলেন তো , তাই বললাম প্রউফ দেখছেন কিনা ।

        একটা সত্যি কথা বলি কবি ? শুধু এই কবিতাটা না , আপনার সব কবিতাই এক্সক্লুসিভ …

        বড় স্বার্থপরের মতো ভালোবেসেছি আপনাদের এটাই আরেকটু ভালো থাকার প্রক্রিয়া , আর অপ্রক্রিয়ায় দূরে থাকিয়ে থাকা আকাশ দেখা পাখি , দিগন্তের ম্লান সবুজ , ভেসে আসা মেঘ মেঘ মেঘ এর কোন কারণ নেই কেন ভালো লাগে , তেমনটাই ভালো আছি থাকবো …

        ভালো থাকবেন । সত্যিকারের শান্তিতে থাকবেন । শান্তি

        imrul.kaes@ovi.com'

        শৈবাল
        সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 5:59 অপরাহ্ন

        • “আমি কোথায় পাবো তারে, আমার মনের মানুষ যে রে…
          হারায়ে সেই মানুষে, তার উদ্দেশে, দেশ-বিদেশে বেড়াই ঘুরে…”

          আহা, এই ভবঘুরে উচাটন মনের খেয়ালি কাণ্ডকারখানা দেখে যখন বায়ুপত্রে নাম লেখাই, সুঁতো ছিঁড়ে যায় ঘুড়ির; ঘাইমারা হেলানো-দোলানো পতনাকর্ষণে হরবড়িয়ে আটকে পড়ি কখনও মগডালে কিংবা কোনো জোসনামাখা প্রীতির আঙিনায়—আবারও সুঁতোয় গিট্টু দিয়ে উড়ায় কেউ, ফেরায় কেউ, হাসায় কেউ, ভাসায় কেউ—আমার ভাসতেই সাধ, আপনার স্ট্যাটাসের মতো—ওই উঁচুতে… ওই উঁচুতে… চলিষ্ণু মেঘ, কার খরতপ্ত জমিনে বৃষ্টি হও, ভিজাও আমূল-সমূল, কার তপ্ত হৃদয় তড়পায় একা একা—কী খুঁজে নিখোঁজ হয় দিনের স্বরলিপি…
          কালের দ্বান্দ্বিক কামিনী হাতে একতারা দিয়ে বলে— গা রে বাউন্ডুলে, সুরে-স্বরে প্রাণপিঞ্জিরার পাখি যদি উড়ে আসে কোনোদিন, ভালোবাসার দেখা পাবি।
          হায় রে ভালোবাসা…
          ভালোবাসা, সে-তো মহামায়ার নাম;
          ভালোবাসা তো বিলীন হবার মন্ত্রণা, বায়ুর মতো জেগে থাকা অনুভব—
          একমাত্র ভালোবাসাই বুঝি আদিঅন্তহীন?

          কবি, যার অনুভবে অনুরণন জাগিয়ে তোলে যে-প্রকৃতি, সে-ও তো মহামায়ার কপাট খুলে দেয়, ডাকে, টানে; আমি দোটানার মধ্যমায় একতার হয়ে থাকি, ছুঁয়ে দিলেই শব্দসুর হয়; ইথারে তখন একতারার টুং টাং…

          রাজন্য রুহানি
          সেপ্টেম্বর 15, 2011 at 7:01 পূর্বাহ্ন

  10. রাজন্যর লেখাগুলো এক্সক্লুসিভ।

    megh613@gmail.com'

    মেঘ
    সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 11:53 পূর্বাহ্ন

    • শৈলীর বিচারকদের খালি আমার লেখাই পছন্দ হয়, হায় কপাল!

      মেঘাপু ঠিকই বলেছেন, বেশির-ভাগ এক্সক্লুসিভ আলখাল্লায় মোড়া আমার কবিতা; কোনদিন জানি খরার দগ্ধতায় দম বন্ধ হয়ে যায়, চিন্তায় আছি।

      লেখা তার প্রাপ্য মর্যাদা পাবে নির্বিশেষে, তা যার লেখাই হোক না কেন; বিচারকদের কাছে আমার এ দাবি।

      ঈর্ষা নয়, হিংসা নয়, বিদ্বেষ নয়
      চাই শান্তি।

      তবু আমার বাড়িতে পদধূলি যে দিয়েছেন দয়া করে, এ আমার পরম সৌভাগ্য, মেঘ আপু। আপনার মঙ্গল হোক।

      রাজন্য রুহানি
      সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 12:11 অপরাহ্ন

  11. সুন্দর লেখা

    sokal.roy@gmail.com'

    সকাল রয়
    সেপ্টেম্বর 14, 2011 at 1:14 অপরাহ্ন

মন্তব্য করুন