নীল নক্ষত্র

স্বাগতম, হে সুদূরের পথিক

Decrease Font Size Increase Font Size Text Size Print This Page

আমার এ চিঠি লিখে রেখে যাই তোমাদের জন্য
অনন্ত শতাব্দীর প্রান্তে দাঁড়িয়ে, পথিক-
এ চিঠি পড়ে যদি পার আমায় করো ধন্য।
এ যুগের গান লিখে রেখে যাই পাখীর কূজনে উত্তর ফাল্গুনে,
জানি তুমি সেদিন জানবে না আমায়, রাখবে না মনে।

হেমন্তে বসন্তে জানিনা সেদিন
বইবে কি দখিনা বাতাস
গাইবে কিনা কোকিল, পাপিয়া
ফুটবে কিনা কুমুদ কুড়ি
লতায় পাতায় মঞ্জরীবে কি
সে দিনের সেই অরণ্য,
গ্রীষ্ম বর্ষা শরতের শিশির ভেজা ঘাস
বকুলের গন্ধে
উথলিয়া উঠবে কি কবির মন
যুগের বিবর্তনে সেদিন বইবে কি বৈশাখী ঝড়,
আষাঢ় গগণে মেঘের গর্জনে
হবে কিনা বিরহী উন্মন।

বড় সাধ জাগে পথিক-
তোমার দেখা যদি পেতাম সেদিন
কানে কানে শুধাইতাম কেমন আছ?
কেমন আছ আজ এই
নব শতাব্দীর প্রান্তে?
ঘুম থেকে জেগে উঠে
যান্ত্রিক কলরবে রোবটের কলতানে
বরণ করবে তুমি অনাগত সাল
আমার এ বারতা
রয়ে গেল তোমাদের জন্য।

পরাধীনতার ক্ষুধিত কারায়
বন্দী ছিল বিগত মানুষ
ফোটেনি আলো চোখে
দলিত হয়েছে কুসুমের গান
পাষাণে ভেঙ্গেছে শত প্রেম
তবুও করেছি বাসনা
রেখে যেতে কিছু সঞ্চয়
অন্তহীন আকাশ, কিছু বাতাস।

তরল অনলে ঝলসাবেনা রমনীর মুখ
বুলেটে ছিন্ন হবে না কোন পুরুষের বুক।
নারী পুরুষে পাশাপাশি সেদিন
বাধবে সুখের বাসর
ধরণীতে এসেছিল যারা
সাজাতে সোনালী আসর।
একই ধরনে বরনে গড়া
একই হাসি কান্না
আনন্দ বেদনা মোহ মায়া
উভয়েই যেন উভয়েরই ছায়া
কেহ নয় নারী কেহ পুরুষ
সকলেই হবে মানুষ
বিধাতার বাসনা সে দিন হবে পূর্ণ।

গ্রহান্তরে করবে তুমি মধুচন্দ্রিমা
পৃথিবী ছেড়ে মহাকাশে
কল্পনা যেখানে মিশেছে আধার
আলপনা আঁকা ওই সুদূরে
আমরা যেখানে দেখেছি অসীম শূন্য।

ক্ষেপনাস্ত্র, মিগ টুয়েন্টি নাইন,
হাইড্রোজেন, মিশাইল, টর্পেডো, মাইন-
চির বিদায় নিবে পৃথিবী থেকে
সাথে ক্ষমতা হিংসা লোভ।
এই পৃথিবী চেয়ে আছে
সেই অনাগত শতকের পানে
ওহে! সুদূরের পথিক,
জানি না কোন দিন পূরণ হবে কি না
আমার এ গহীন স্বপন।
(আজ থেকে প্রায় বিশ বছর আগে রবি’দাকে অনুকরণ করার দুঃসাহস করেছিলাম। দাদা কি বলতেন তা শোনার ভাগ্য হবে না, আপনারাই বলুন।)

শৈলী.কম- মাতৃভাষা বাংলায় একটি উন্মুক্ত ও স্বাধীন মত প্রকাশের সুবিধা প্রদানকারী প্ল‍্যাটফর্ম এবং ম্যাগাজিন। এখানে ব্লগারদের প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। ধন্যবাদ।


12 Responses to স্বাগতম, হে সুদূরের পথিক

  1. juliansiddiqi@gmail.com'
    জুলিয়ান সিদ্দিকী সেপ্টেম্বর 22, 2010 at 4:53 অপরাহ্ন

    রবি ঠাকুরের মন্তব্য পাবেন না তো হলো কি, তাঁর আছর আছে কবিতায় :rose:

  2. espoll15@gmail.com'
    প্রহরী সেপ্টেম্বর 22, 2010 at 5:12 অপরাহ্ন

    আমি নিজস্ব মৌলিকতায় বিশ্বাসী।

  3. snmhoque@yahoo.com'
    আজিজুল সেপ্টেম্বর 22, 2010 at 5:20 অপরাহ্ন

    একই হাসি কান্না
    আনন্দ বেদনা মোহ মায়া
    উভয়েই যেন উভয়েরই ছায়া
    কেহ নয় নারী কেহ পুরুষ
    সকলেই হবে মানুষ
    বিধাতার বাসনা সে দিন হবে পূর্ণ।
    —-বেশ লেগেছে!! গত কয়দিন কবিতার আকাল পড়েছিল এখানে। বেশ লাগল তাই।

  4. bonhishikha2r@yahoo.com'
    বহ্নিশিখা সেপ্টেম্বর 22, 2010 at 5:23 অপরাহ্ন

    ঠাকুর থাকলে হয়তো বলতেন, অনুকরণ করলেও যেন কেউ টের না পায়…!!!
    :rose:

    • নীল নক্ষত্র সেপ্টেম্বর 23, 2010 at 11:25 পূর্বাহ্ন

      এমনে এমনে কি আর গুরু হওয়া যায়??? কিন্তু গোলাপ কেমনে দেয়? আমি যে পাইলাম না, কোন দোকান থিকা কিনছেন দিদি?যাকগা, আমার নাম কইরা তিন গোছা নিয়া নিয়েন বাকীতে।

  5. মামদো ভুত সেপ্টেম্বর 22, 2010 at 5:28 অপরাহ্ন

    আপনাকে অনেকদিন পর পেলাম। এতদিন কোথায় ছিলেন?

  6. নীল নক্ষত্র সেপ্টেম্বর 23, 2010 at 11:21 পূর্বাহ্ন

    ধন্যবাদ, সাথে এক গোছা রজনী গন্ধা।

You must be logged in to post a comment Login