উপন্যাস

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ১১)

এগার বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছার ঠিক আগের মুহূর্তে বাসের একটা ট্রিপ ছেড়ে চলে যেতে দেখল তাহের। ঘড়িতে কেবল সাতটার আশে পাশে বাজে এরকম সময়ের সকালবেলা, বেশ সুন্দর আবহাওয়া; সূর্য উঠি উঠি করছে। এরকম সময়েই সে অফিসে যাওয়ার জন্যে বের হয়েছে। এই সুন্দর সকালে দৌড় দিয়েও ট্রিপটা ধরতে পারল না বলে রাস্তার উপরে একটা ফাঁকা লাথি চালাল। বাসস্ট্যান্ডে […]

 নীল নক্ষত্র

নক্ষত্রের গোধূলি-২১

সত্যিই আপা আপনি অসাধারন। না ভাই এভাবে বলবেন না। কেন বলবো না, আপনি তো সাধারণের চেয়ে সম্পূর্ন ভিন্ন প্রকৃতির। এমন আমি খুব কমই শুনেছি। আসলে কি ভাই আপনার দুলাভাই এমন একজন মানুষ যাকে ছাড়া আমি কিছু ভাবতে পারি না, সামান্য একটা কাজও যদি ওকে জিজ্ঞেস করে না করি তবুও মনে একটা খুত খুতানি থেকেই যায়। […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ১০)

দশ ঘুম ভাঙ্গার পর থেকেই বাসি রজনীগন্ধাগুলোর দিকে তাকিয়ে রয়েছে বৈশাখী। বিবর্ণ রঙ ধারন করে শুকিয়ে নুয়ে পড়েছে সেগুলো যেন আগের দিনের কোন রাজা-বাদশাকে কুর্ণিশ করছে জড়সড় হয়ে। জানালা দিয়ে অল্প অল্প আলো এসে ঢুকেছে ঘরে, সেটা দিয়েই ঘরের ভিতর চারদিকে আবছা আবছা দেখা যায়। আসবাবপত্র তেমন নেই কিন্তু যা আছে খুব সুন্দর পরিপাটি করে […]

 নীল নক্ষত্র

নক্ষত্রের গোধূলি-২০

মনিরা অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলো তুমি চিনলে কি ভাবে? তুমি তো হারিয়ে যাবার ভয়ে আমার সাথে আসতেই চাইছিলে না। এখন বল তোমাকে অযথা হাটিয়েছি? না। তাহলে আসতে চাওনি কেন?মনে নেই সেবার কলকাতায় কি করেছিলে?কি ওই দোকান থেকে ভিড়ের জন্য বাইরে এসে দাঁড়িয়ে ছিলাম আর তুমি আমাকে দোকানের ভিতর না দেখে কাঁদতে কাঁদতে বাইরে চলে এসেছিলে। […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ৯)

নয় দেয়ালে ঝোলানো আয়নাটির সাইজ কত হবে? ছয় ইঞ্চি বাই তিন ইঞ্চি? এটুকু দিয়ে মুখ দেখতে গেলে হয় শুধু চোখ-নাক নাহয় নাক-মুখ দেখতে হবে, আর চুল আচড়ানোর সময় শুধু চুল দেখতে হবে। এটুকু দিয়ে রফিকের ছেলে হিসেবে যে সাজগোজ লাগে তা ভালই চলে যায়। দীনানাথবাবু দেয়ালে ঝোলানো সেই আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে টয়লেট টিস্যু পেপার দিয়ে […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ৮)

আট দূর থেকে ঠিকই সুমাইয়াকে চিনতে পেরেছে মাহের। সেই মুখ, সেই ভঙ্গি; মাহের কিভাবে ভুলতে পারে? ইউএনোর বাসার বাউন্ডারীর ভিতরে বাগানে হাঁটছিল সুমাইয়া। অনেকক্ষন ধরে লক্ষ্য করেছে মাহের, লোহার মেইন গেট দিয়ে বাগানটা দেখা যায়। ভাগ্যিস ও আজ মর্নিং ওয়ার্কটা করতে বেড়িয়েছিল, শরীরটা একটু খারাপ বলে বের হতে চাইনি প্রথমে। বাগানে একটা ছোট্ট বাচ্চাকে দৌঁড়ে […]

 নীল নক্ষত্র

নক্ষত্রের গোধূলি-১৯

ফিরোজ জিজ্ঞেস করলো এবার বল দেখি কি ব্যাপার, হঠাত্ করে চলে এলে, নাকি কোন কাজ আছে?কামরুলের কাছে শুনেছি তুমি তো ভাল চাকরী করতে তারপর আবার বিরাট ব্যাবসা করছিলে। সে ব্যবসা আর নেই সব শেষ, সেই জন্যই তো আসা। একটা কাজকর্ম কিছু যোগাড় করে দাও। সম্ভব হলে দুজনকেই নয়তো অগত্যা আমার যা হোক একটা কিছু। সব […]

 জুলিয়ান সিদ্দিকী

তিতিক্ষা

ঘটনার আবর্তে এতটা জড়িয়ে যাবে জানলে কখনোই এ মুখো হতো না রবিউল। কিন্তু এ কথা সে এখন ভাবছে, আসলে না এসেও সে পারছিলো না। কারণ বয়স্ক বন্ধুর কাছে মান খোয়ানোর চাইতে কিছুটা কষ্ট করে হলেও পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার মত কষ্ট করা তার কাছে ঢের সহজ। এখানে না এলে হয়তো বাকি জীবন খোঁটা শুনেই কাটাতে হতো […]

 নীল নক্ষত্র

নক্ষত্রের গোধূলি-১৮

ভাবী অনেক কিছু রান্না করেছে বিরিয়ানি, রোস্ট, কাবাব, চিকেন গ্রীল। খেতে বসে ফিরোজের মা মনিকে বললো রাশেদের বাড়ি তো শুনলাম আমাদের পাশেই তা তোমার বাবার বাড়ি কোথায়? ওখানেই। আপনাদের বাড়ি পাশেই মানে কোথায়? ফিরোজের মা তার বাবার বাড়ির ঠিকানা বলতেই মনি আনন্দে আত্মহারা হয়ে বলে উঠল, ও! আপনি শহিদ চাচার বোন? এই ব্যাপার! অথচ দেখেন […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ৭)

সাত তাহের অফিসে বেশিরভাগ দিনই দুপুরের খাবার খায় না। কিন্তু যেদিন খায় সেদিন খাওয়ার পরেই দুম করে ঘুম নেমে আসে চোখে। আজ যেমন এসেছে, ঘুমে মাথাটা প্রায় নুয়েই পড়েছে টেবিলের উপর। ফাইলগুলো নিয়ে জেগে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে সে। আজকের মধ্যে একটা রিপোর্ট জমা দিতে হবে, সকালে বেশ বকাঝকা করেছেন ম্যানেজার স্যার; আজেবাজে কথা […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ৬)

ছয় “ডাকাত সন্দেহে পাঁচজনের গণপিটুনিঃ একজনের মৃত্যু” “রাহধানীতে র‍্যাবের গুলিতে যুবক নিহত” “যাত্রাবাড়ীতে তিন খুনঃ মূল পরিকল্পনাকারী নিহতের দুই ভাই” “মোহাম্মাদপুরে ছেলের হাতে মা খুন” সাখাওয়াত সাহেব দৈনিক পেপারটা নামিয়ে রাখলেন টেবিলের এক কোনায়। খুন-খারাবি ছাড়া আজকাল পেপারে কিছুই থাকে না। সকালবেলাতেই মন মেজাজ দুইই খারাপ করে দেয়। অবশ্য আজ সকাল থেকে এমনিতেই তার মন […]

 তাহমিদুর রহমান

ধারাবাহিকঃ নিশিযাত্রা (পর্ব ৫)

পাঁচ গুলশান এক নম্বরের গোল চত্বর থেকে কিছু দূরে একটি বিপনি বিতানে সেলস্ গার্লের কাজ করে বৈশাখী। কেবল ছয়টা বাজে, সামনে দুই ঘন্টা একটু বেশিই ব্যস্ত থাকতে হয় তাকে। কারন এসময় অফিস ছুটির পর কাষ্টমার বেশিই আসে, তারপরেই ছুটি হয় ওর। “স্যার আপনাকে কিভাবে সাহায্যে করতে পারি?” কাষ্টমারের উদ্দেশ্যে বলে বৈশাখী। কাষ্টমারটি একটা ব্রান্ডের শাওয়ার […]